rajvaban cctv footage

ব্যুরো নিউজ, ৯ মে : রাজ্যপালের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে উত্তাল রাজ্য – রাজনীতি। গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার এক অস্থায়ী মহিলা কর্মী রাজ্যপালের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ তোলেন। তার  দাবি, রাজ্যপাল তাঁর দুবার শ্লীলতাহানি করেন। ঘটনায় হেয়ার স্ট্রিট থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়। যদিও সেই অভিযোগ উড়িয়ে দেন রাজ্যপাল আনন্দ বোস। এই ঘটনায় রাজনৈতিক যোগসাজশ রয়েছে বলেই তার ধারণা।

এদিকে এই ঘটনায় রাজনৈতিক যোগসাজশের সম্ভাবনা প্রকাশ করেছেন মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়। তিনি রাজ্যপাল বোসের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ প্রসঙ্গে বলেন, রাজ্যপালের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ বিশ্বাসযোগ্য নয়। এই অভিযোগ অবশ্যই প্রমান করতে হবে। তা না হলে অভিযোগকারি আইনি সমস্যায় পড়বেন। একই সঙে তিনি বলেন, রাজ্যপালের বিরুদ্ধে কোনও ফৌজদারি মামলা করা যায় না। এমনকি রাষ্ট্রপতির বিরুদ্ধেও তা প্রযোজ্য। রাজ্যপালের বিরুদ্ধে  দেওয়ানি মামলা করতে হলে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়।

একই সঙে তিনি অভিযোগকারি ওই মহিলার বিরুদ্ধে বলেন, ওই মহিলাকে তার আনা সেই অভিযোগ প্রমান করতে হবে। এবং ওই মহিলার বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ২১১ সেকশন অনুযায়ী মামলা রুজু করার কোথাও বলেন। একই সঙে তথাগত রায় বলেন, নিজের ইজ্জত খোয়ানোর কথা বলা কোনও মহিলার পক্ষেই কঠিন। কিন্তু টাকার বিনিময়ে অনেক কিছুই হয়। আর তার এই বক্তব্যে যথেষ্ট ইঙ্গিতপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

মালদায় ইভিএম কারচুপির অভিযোগ বিজেপি প্রার্থী খগেন মুর্মুর

ঘটনায় উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য-রাজনীতি। শ্লীলতাহানির অভিযোগ তুলে মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য সরব হলে। তার বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপও নেয় রাজভবন। রাজভবনে রাজ্যের অর্থ প্রতিমন্ত্রীর প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়। এমনকী ভোটের সময় রাজভবনে পুলিশের প্রবেশের ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। তদন্তের জন্য গঠন করা হয় তদন্তকারী দল।

এরই মাঝে রাজভবনের তরফে বিবৃতি জারি করা হয়। বিবৃতিতে জানানো হয়, রাজভবনের সিসিটিভি ফুটেজ আমজনতা দেখতে পাবেন। শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তার পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে পারবেন না। বুধবার বিকেলে রাজভবনের অফিসিয়াল এক্স হ্যান্ডেলে এমনই বিবৃতি জারি করা হয়।

তবে এখন প্রশ্ন উঠছে যে, কীভাবে রাজভবনের সিসিটিভি ফুটেজ আমজনতা দেখতে পাবে? রাজভবনের তরফে ওই বিবৃতিতে দুটি ই-মেল আইডি দেওয়া হয়েছে। একটি হল: [email protected] এবং অপরটি [email protected]। এমনকি একটি ফোন নম্বরও রয়েছে। নম্বরটি হল: ০৩৩ ২২০০ ১৬৪১। বিবৃতিতে দেওয়া এই দুটি ই-মেল আইডি বা ফোন নম্বরে যোগাযোগ করলে দেখা যাবে রাজভবনের সিসিটিভি ফুটেজ । জানানো হয়েছে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা নাগাদ প্রথম একশোজন আবেদনকারী এই সিসিটিভি ফুটেজ দেখার সুযোগ পাবেন।

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর