tmc bjp clash at kultoli

ব্যুরো নিউজ, ২৭ মার্চ: লোকসভা নির্বাচনের ডঙ্কা যে বেজে গিয়েছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। ইতিমধ্যেই একে একে সব জায়গাতেই জোর কদমে প্রচার শুরু করে দিয়েছে প্রার্থীরা। তবে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ৪২ টি লোকসভা আসনে প্রার্থী ঘোষণা হলেও এখনও বিজেপির তরফ থেকে এখনো সম্পূর্ণ প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়নি। এদিকে প্রার্থীদের মধ্যে কার্যত দেখা যাচ্ছে পারিবারিক লড়াই। ফলে বলা যেতেই পারে নির্বাচনী লড়াই পরিণত হয়েছে গৃহযুদ্ধে! আর সেই ‘গৃহযুদ্ধে’র নজির কিন্তু কিছু কম দেখেনি বঙ্গবাসী।

Advertisement of Hill 2 Ocean

কোথাও শ্বশুর জামাইয়ের লড়াই, তো আবার কোথাও স্বামী স্ত্রীর লড়াই। যেমন নজর কেড়েছে শ্রীরামপুর। তেমনই কোনও অংশে কম যায়নি বিষ্ণুপুরও। এক ছাপিয়ে গিয়েছে অপরকে।

ভোটের সময় পারদ থাকবে ঊর্ধ্বমুখী, একগুচ্ছ নির্দেশিকা কমিশনের

এদিকে শ্রীরামপুরে প্রাক্তন শ্বশুর ভার্সেস প্রাক্তন জামাই, আর অন্যদিকে বিষ্ণুপুরে প্রাক্তন স্বামী ভার্সেস প্রাক্তন স্ত্রী। একেবারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। কেউ কাউকে একটুও জমি ছাড়তে নারাজ। এতক্ষণ এই খবর শুনে অনেকের মনেই হয়তো এই প্রশ্নটা নাড়া দিতে শুরু করেছে যে, আসল বিষয়টি ঠিক কি?

শ্রীরামপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে লোকসভায় টক্কর দিতে তার বিপরীতে দাঁড়িয়েছেন অন্য কোনও বিশেষ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নয়। বরং কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তারই প্রাক্তন জামাই আইনজীবী কবীর শঙ্কর বসু। অর্থাৎ শ্রীরামপুরে তৃণমূল প্রার্থী শ্বশুর হলে বিজেপি প্রার্থী কিন্তু জামাই।

ভোটের আগে অস্বস্তি বাড়ছে মহুয়ার! ফের মহুয়াকে তলব ED-র

আইনজীবী হিসেবে সুপ্রিম কোর্ট এবং কলকাতা হাইকোর্টে রয়েছে বিশেষ সুনাম কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বাম যামানায় সিপিএম প্রার্থী শান্তাসীর চ্যাটার্জিকে হারিয়ে ২০০৯ সালে প্রথম লোকসভার সাংসদ হন কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর থেকে তার সেই জেতার ধারা অব্যাহত। কিন্তু এবার তারই বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছেন তার প্রাক্তন জামাই। ২০১৭ সালে কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়ের মেয়ের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় কবীর শংকর বসুর। সেখান থেকেই সম্পর্কে আসে ক্ষোভ-তিক্ততা। এরপর ২০১৯ সালে মুকুল রায়ের হাত ধরেই বিজেপিতে যোগ দেন কবীর শংকর। তারপর থেকেই রাজনীতির ময়দানে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বহুবার সুর চড়াতে দেখা গিয়েছে তাকে। কিন্তু এবার কবীর শংকর বসু লোকসভা লড়বেন অন্য কেউ নন, নিজের প্রাক্তন শ্বশুরের বিরুদ্ধে।

এদিকে বিষ্ণুপুরে আবার প্রাক্তন স্বামী- স্ত্রীর ‘যুদ্ধ’। কিন্তু স্বামী- স্ত্রীর ‘যুদ্ধ’ তা নতুন কিছু নয়। যুগ- যুগান্তর ধরে এ প্রতিটি সংসারের রোজ নামচা। কিন্তু তা যদি হয় ভোট বক্স নিয়ে তবে তা অন্য ব্যাপার বটে। বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সৌমিত্র খাঁ। এদিকে তারই বিপরতে ভোট ময়দানে লড়ছেন সৌমিত্র খাঁ প্রাক্তন স্ত্রী সুজাতা মন্ডল। ২০১৬ সালে সুজাতা – সৌমিত্র বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। কিন্তু সম্পর্কে চিড় ধরে ২০১৯ সালে সৌমিত্র বিজেপির টিকিটে জয়লাভ করার পর ২০২০ সালে সুজাতা তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলে। তারপর থেকেই তাদের নিয়ে চোর চর্চা চলে। কখনও তাদের একে অপরকে দোষারোপ করতে দেখা যায়। আবার কখনও একে অপরের জন্য সংবাদ মাধ্যমের সামনে কাঁদেতেও দেখা গিয়েছিল। কিন্তু এবার ২৪-এর ময়দানে তারা একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে। তাই এদিকে যেমন প্রাক্তন শ্বশুর-জামাইয়ের খেল দেখবে শ্রীরামপুর, তেমনই প্রাক্তন স্বামী- স্ত্রীর ফেস টু ফেস ফাইট দেখবে বিষ্ণুপুরও।

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর