Suvendu Adhikary

ব্যুরো নিউজ, ১৫ এপ্রিল: ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ভুল বোঝাচ্ছে ‘পিসি-ভাইপো’! ‘মিথ্যার রাজনীতি’ কটাক্ষ শুভেন্দুর। দুর্যোগ বিধ্বস্ত অবস্থায় ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। এদিকে সেই বিষয়কে তুলে ধরে ‘মিথ্যার রাজনীতি’ করছে শাসক দল। ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া নিয়ে লাগাতার সুর চড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার পাল্টা জবাব দিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

‘পিসি-ভাইপো’কে কটাক্ষ শুভেন্দুর

ইরান-ইজরায়েলের যুদ্ধে বড়সড় ধসের মুখে শেয়ার বাজার

শুভেন্দু অধিকারী নিজের এক্স হ্যান্ডেলে পোস্টও করেছেন। সেখানে তিনি বলেন, মমতা-অভিষেক যে দাবি করছে তা মিথ্যা। দুর্যোগ বিধ্বস্ত অবস্থায় ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। ৯ এপ্রিল অনুমতি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

তিনি পোস্টে লিখেছেন, "আপনি কিছু লোককে সব সময় বোকা বানাতে পারেন, এবং সব মানুষকে কিছু সময় বোকা বানাতে পারেন, কিন্তু আপনি সব সময় সব মানুষকে বোকা বানাতে পারবেন না। পশ্চিমবঙ্গের বিখ্যাত জুটি প্যাথলজিক্যাল এবং জন্মগত মিথ্যাবাদীরা মনে করেন যে তারা মিথ্যা বলতে থাকবে এবং পশ্চিমবঙ্গের লোকেরা এটিকে সত্য বলে মনে করবে ! তারা বোকার স্বর্গে বাস করছে।

https://twitter.com/SuvenduWB/status/1779719024789901708?ref_src=twsrc%5Etfw%7Ctwcamp%5Etweetembed%7Ctwterm%5E1779719024789901708%7Ctwgr%5Ec1425c117105725daa99b4da11047ee64938e81c%7Ctwcon%5Es1_&ref_url=https%3A%2F%2Ftv9bangla.com%2Fkolkata%2Fcommission-has-allowed-politics-of-lies-is-going-on-in-compensation-suvendu-attacks-mamata-abhisekh-1054478.html

সলমনের বাড়ির সামনে গুলি চালানো ব্যক্তির পরিচয় জানেন? এই কুখ্যাত গ্যাংস্টারের পরিচয় জানলে শিউড়ে উঠবেন  
ভারতের নির্বাচন কমিশন, 9ই এপ্রিল, 2024-এ, মডেল কোড অফ কন্ডাক্ট (MCC) থেকে এক্স গ্রেশিয়া এবং হাউস বিল্ডিং অনুদান (H.B. অনুদান) প্রদানের জন্য ছাড় মঞ্জুর করেছে। এই বার্তাটি পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে 9 ই এপ্রিল, 2024-এ পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল, যাতে ময়নাগুড়ি এবং জলপাইগুড়ির মানুষ যারা বিধ্বংসী টর্নেডোতে তাদের ঘরবাড়ি হারিয়েছে, তারা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বাড়ি নির্মাণ অনুদান পেতে পারে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং নাগরিক প্রতিরক্ষা উন্নয়নের জন্য তহবিল প্রকাশের উপর কোন নিষেধাজ্ঞা নেই, যার একটি বড় অংশ কেন্দ্রীয় সরকার এনডিআরএফ-এর মাধ্যমে প্রদান করে।"
 
আএ সেই পোস্টে শুভেন্দু অধিকারী একটি ভিডিও যুক্ত করেছেন। সেখানে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলতে শোনা যায়, নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হওয়ার দিন থেকে রাজ্য সরকার চলে যায় কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের অধীনে। তাই নির্বাচন কমিশন যতক্ষণ না অনুমতি দেবে ততক্ষণ আমরা কোনও কাজ শুরু করতে পারি না। ৩১ তারিখ বিকালে ঝড় হওয়ার পরের দিন রাজ্যের তরফ থেকে ইলেকশন কমিশনকে লিখিতভাবে জানিয়েছিলাম।  যাদের ছাদ ঘর ভেঙে গিয়েছে তাঁদের জন্য যাতে বাড়ির ব্যবস্থা রাজ্য সরকার করতে পারে। রাজ্যকে সেই অনুমতি দিতে বলেছিলাম। নির্বাচন কমিশন সেই অনুমতি দিল না।  

একই সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী সেই পোস্টে তথ্য প্রমান দিয় এও জানিয়েছেন যে, গত ৯ এপ্রিল  নির্বাচন কমিশন সেই অনুমতি দিয়েছে।

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর