বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

JOB recruitment

ব্যাঙ্কে চাকরির বিরাট সুযোগ! ৩ মাস বিনামূল্যে কোর্স করলেই বাজিমাত, হাতছাড়া করবেন না এই সুযোগ

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে : বেকারত্বের সমস্যা এক বড় সমস্যা। বর্তমান সময়ে বেকারত্বের সমস্যা রয়েছে গোটা দেশজুড়ে। স্বপ্নের চাকরির আশায় আশায় সারা জীবন কেটে যায় অনেকের। তবে আর সমস্যায় পড়তে হবে না বেকারদের। তাদের চাকরির বিরাট সুযোগ দিচ্ছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। সম্পূর্ণ বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে ব্যাঙ্কিং এবং ফাইনান্স-এর উপর। কীটনাশক মেশানো হচ্ছে মশলায়, দুই ভারতীয় সংস্থাকে নিষিদ্ধ করল নেপাল ভালো চাকরির সুযোগ পাবেন ছাত্র-ছাত্রীরা বর্তমানে উচ্চ শিক্ষিত ভক্তরাও বেকার হয়ে বাড়িতে বসে। কাজ নেই। থাকলেও তা যোগ্যতা অনুযায়ী হয়না। তাই রাজ্য ছেড়ে অন্য রাজ্যে কিংবা অন্য দেশে কাজে যাওয়ার একটা প্রবণতা রয়েছে যুবকদের মধ্যে। বিভিন্ন বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদের স্বনির্ভর করে তোলার চেষ্টা করা হচ্ছে সরকারি পাশাপাশি বেসরকারি ভাবেও। তাই যাতে যুবক যুবতীদের প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদের চাকরি দেওয়া যায় তাই বিশেষ উদ্যোগ নিলে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ও অম্বুজা সিমেন্ট ফাউন্ডেশন। স্নাতক ডিগ্রি প্রাপ্ত ছাত্র ছাত্রীদের জন্য বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নিলো অম্বুজা সিমেন্ট ফাউন্ডেশন ও এসবিএই (SBI)। এই দুই সংস্থার পক্ষ থেকে গ্রাজুয়েট ছাত্রছাত্রীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে ব্যাঙ্কএবং ফাইনান্সের উপর। কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও সফট স্কিল ট্রেনিং দেওয়া হবে। তিন মাসের মধ্যে প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করে তাদের কাজের উপযুক্ত করে তোলা হবে। এই ট্রেনিংয়ের জন্য কোন টাকা পয়সা লাগবে না। কোর্সের নাম দেওয়া হয়েছে, “বিজনেস করেসপন্ডেড এন্ড বিজনেস ফেসিলেটর”। তবে মাত্র কুড়ি জন এই প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা লাগবে গ্রাজুয়েট। প্রতিদিন চার ঘণ্টা করে ক্লাস করতে হবে। প্রশিক্ষণরত প্রার্থীদের বয়স হতে হবে এসব থেকে ২১ বছরের মধ্যে। সব ছাত্রছাত্রীকে করানো হবে ইউনিফর্ম ও এক্সপোজার ভিজিট। প্রশিক্ষণের শেষে সকলকে সার্টিফিকেট দেওয়া হবে। এরপর বিভিন্ন সংস্থায় বা কোম্পানিতে ভালো চাকরির সুযোগ পাবেন ছাত্র-ছাত্রীরা।

আরো পড়ুন »
KATHI BJP WORKER MURDER CASE

কাঁথিতে নজর CBI-এর! তৃণমূল নেতার বাড়িতে গিয়ে আধার-ভোটার কার্ড দেখল CBI, নজরে এবার কারা?

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে : ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে কাঁথিতে বিজেপি নেতা খুনের ঘটনায় উত্তাল হয় রাজ্য- রাজনীতি। এবার সেই মামলায় সিবিআই-এর নজরে একাধিক নেতা। নিয়োগ দুর্নীতিতে এবার দেবের নাম? চাকরিপ্রার্থীর অডিও প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য প্রসঙ্গত, বিধানসভা নির্বাচনের আগে উত্তাল হয় কাথির রাজনীতি। কাঁথি তিন নম্বর ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি নন্দ মাইতিকে মারধরের অভিযোগ ওঠে এলাকার বিজেপি নেতা জন্মেজয় দলুইয়ের বিরুদ্ধে। এরপর ওই বিজেপি কর্মীকে পাল্টা মারধর করে বলে অভিযোগ। ফাঁকা মাঠ থেকে উদ্ধার হয় বিজেপি নেতার দেহ। ঘটনায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। এরপর ওই মামলায় মৃত বিজেপি কর্মীর পরিবারের পক্ষ থেকে সিবিআই তদন্তের দাবি জানালে তদন্তে নামে সিবিআই। ভোট আবহেই  কাঁথিতে বিজেপি নেতা খুনের ঘটনায় এবার সিবিআই-এর নজরে একাধিক নেতা। ৩০ জন তৃণমূল নেতাকে হাজিরার নির্দেশ দিলে ভোট প্রচারকে অজুহাত করে তারা সকলেই গড় হাজির থাকে। এরপর আজ মাঠে নামে সিবিআই। একাধিক তৃণমূল নেতার বাড়িতে সাতসকালে কড়া নাড়ে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী এজেন্সি। দুই তৃণমূল নেতার বাড়ি-সহ একাধিক জায়গায় জিজ্ঞাসাবাদ করে। আজ সকাল ৬টা নাগাদ মারিশদার সিজুয়া গ্রামে তৃণমূল নেতা নন্দদুলাল মাইতির বাড়ি কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে  ঘিরে ফেলা হয়। নন্দদুলাল মাইতির ছেলে বুদ্ধদেব মাইতির খোঁজখবর শুরু করে। জিজ্ঞাসাবাদ এমনকি নন্দ মাইতি এবং তাঁর স্ত্রীর ভোটার কার্ড, আধার কার্ড দেখতে চায় তদন্তকারী আধিকারিকরা। পাশাপাশি তৃণমূল নেতা দেবব্রত পণ্ডা’র বাড়িতেও যায় সিবিআই। এদিকে আইএনটিটিইউসি জেলা সভাপতি বিকাশ বেজের বাড়িতে হানা দেয় তবে সেখানে বিকাশ বেজের বাড়ি তালা বন্ধ পায় সিবিআই। এছাড়াও  আরও কয়েকজন তৃণমূল নেতার বাড়ির খোঁজ খবর নেয় সিবিআই।

আরো পড়ুন »
dev viral audio

নিয়োগ দুর্নীতিতে এবার দেবের নাম? চাকরিপ্রার্থীর অডিও প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে : লোকসভা নির্বাচনের মাঝেই চাপ বাড়ছে ঘাটালের তৃণমূল প্রার্থী দীপক অধিকারীর। ইতিমধ্যেই চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে দেব ‘ঘনিষ্ঠে’র বিরুদ্ধে। আর এরপর চাকরিপ্রার্থীর অডিয়ো প্রকাশ্যে আসতেই কার্যত ফের অস্বস্তিতে ঘাটালের তৃণমূল প্রার্থী। ‘তৃণমূল মানে তোলাবাজি’, এবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর নিশানায় রাজ্য সরকার এদিকে একের পর এক সন্দেশখালির ভাইরাল ভিডিও উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। যতই দিন যাচ্ছে আরও জটিল হচ্ছে সেখানকার পরিস্থিতি। আর নানান ভিডিও সামনে আসতেই ফের শাসক বিরোধী তরজা তুঙ্গে। সন্দেশখালিতে কেউ কাউকে এক চুলও জায়গা ছাড়তে নারাজ। সেই জায়গায় দাড়িয়ে যখন দুর্নীতি, কারচুপি, কাঠমানির অভিযোগে এক প্রকার জর্জরিত শাসকদল তখন এক চাকরিপ্রার্থীর অডিও প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়ায়। তবে এবার সন্দেশখালি নয়, এবার উত্তাল ঘাটালের রাজনীতি। সম্প্রতি একটি  অডিও ( সেই অডিও-এর সত্যতা প্রকাশ করেনি EVM NEWS)  প্রকাশ্যে এনেছেন ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী হিরণ। আর সেই অডিওতে এক মহিলার সঙে কথা বলতে শোনা যায় দেবকে। আর টাকার বিনিময়ে চাকরি সংক্রান্ত বিষয় নিয়েই চলে কথোপকথন। হিরণের দাবি, চাকরি জন্য ৯ লক্ষ টাকা দিয়েছেন ওই মহিলা। এরপর চাকরি না পেয়ে ফোন করে টাকা ফেরত চান তিনি। মহিলার সঙ্গে ফোনে কথোপকথনের অতিও প্রকাশ্যে এনে এমনটাই দাবি হিরণের। সেই অডিও-তে শোনা গিয়েছে, ওই মহিলা দেবকে জানান যে তিনি চাকরির জন্য ৯ লক্ষ টাকা দিয়েছেন। সেখানে রাম নামে এক ব্যক্তির কোথা উল্লেখ করে মহিলা ভলেছেন রাম তার কাছ থেকে ৯ লক্ষ টাকা নিয়েছিল। কিন্তু এখন চাকরিও মেলেনি এমনকি তাকাও ফেরত পাননি তিনি। বিষয়টি তিনি সায়ন্তনকে জানিয়েছেন বলেও দাবি করেছেন। কিন্তু কিছুি হয়নি। ওই মহিলার কোনও রাজনৈতিক যোগ নেই বলেও দাবি করেছেন। আর বিষয়টি তিনি জনপ্রতিনিধি দেবকে জানিয়ে সমস্যা সমাধানের কথা বলেন। এরপরে শোনা যায়, দেবও বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন। আর ভোট আবহে এই অডিও প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে যায়। ঘটনায় দেব দাবি করেছে, এসব ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। মহিলার কণ্ঠস্বর এডিট করা হতে পারে। ভোটের মুখে বিজেপি একের পর এক অডিও প্রকাশ্যে আনছে।অপাশাপাশি তিনি বিষয়টি নিয়ে তদন্তের দাবিও করেন। এমনকি প্রয়োজনে মামলা করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তবে বিজেপি প্রার্থী হিরণ জানিয়েছেন, পুরো বিষয়টাই দেব জানত। ওই অডিও-তে সায়ন্তন নামের উল্লেখ করেছে ওই মহিলা। সায়ন্তন আসলে দেবের সেক্রেটারি। এটা চাকরি বিক্রি করার র‌্যাকেট।  

আরো পড়ুন »
Nirmala Sitharam Attack TMC

‘তৃণমূল মানে তোলাবাজি’, এবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর নিশানায় রাজ্য সরকার

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে  : শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি থেকে সন্দেশখালি একাধিক ইস্যুতে লোকসভা নির্বাচনের মাঝে কিছুটা হলেও ব্যাকফুটে তৃণমূল সরকার। আর এবারের নির্বাচনে এই ইস্যুগুলি বিজেপির মূল হাতিয়ার। নির্বাচনী প্রচারে রাজ্যে এসে এই ইস্যুগুলিকে কেন্দ্র করে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, জে পি নাড্ডা সকলেই। এর সঙ্গে আবাস যোজনার টাকা নিয়েও তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেখা গিয়েছে তাঁদের। আর এবার কলকাতায় এসে একই বিষয়ে রাজ্য সরকারকে নিশানা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। রাজা চার্লস-এর প্রতিকৃতি ঘিরে বিতর্ক! দৈত্যের সঙে তুলনা! ‘সন্দেশখালিতে ভিক্টিম শেমিং করছে তৃণমূল’ তৃণমূল সরকার বরাবরই কেন্দ্রীয় বঞ্চনার বিরুদ্ধে সুর চড়ায়। এবার কলকাতায় এক অনুষ্ঠানে এসে কেন্দ্রের পাঠানো টাকা নয়ছয় করার অভিযোগে পাল্টা তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। ‘টিএমসি মানে তোলাবাজি, মাফিয়া, দুর্নীতি। মানুষের জন্য স্কিমে করাপশন। ১০০ কোটি টাকার দুর্নীতি করেছে।’ এই ভাষাতেই রাজ্য সরকারকে নিশানা করলেন নির্মলা সীতারমণ। এবারের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলকে ব্যাকফুটে পাঠাতে বিরোধীদের কাছে বড় ইস্যু বলা যায় সন্দেশখালি। শাহজাহান শেখ থেকে শুরু করে মহিলাদের উপর নির্যাতন, বিদেশি অস্ত্র উদ্ধার সব কিছুতেই প্রশ্নের মুখে রাজ্য সরকার। এরপর নিত্য নতুন ঘটনা প্রবাহে প্রায় প্রতিদিনই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে সন্দেশখালি। এই আবহে এদিন কলকাতার অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সন্দেশখালি প্রসঙ্গে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। ‘সন্দেশখালিতে ভিক্টিম শেমিং করছে তৃণমূল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেও করেছেন। পার্ক স্ট্রিটের সময়।’ সন্দেশখালির ঘটনায় প্রতিবাদ জানাতে এইভাবেই মুখ্যমন্ত্রীর দিকে আঙুল তুললেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ।

আরো পড়ুন »
Rupali Ganguli on bengal

বাংলায় বিজেপির প্রচারে তারকা চমক! শ্রীরামপুর ও কলকাতা উত্তরে রোড-শো অভিনেত্রী রূপালি গঙ্গোপাধ্যায়ের

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে : আগামিকালই রাজ্যের আসছেন অভিনেত্রী রূপালি গঙ্গোপাধ্যায়। চলছে লোকসভা নির্বাচন। ইতিমধ্যেই রাজ্যে চতুর্থ দফায় নির্বাচন সম্পন্ন। আগামী ২০ মে পঞ্চম দফায় ভোট গ্রহণ। আর তার আগেই ১৮ মে শনিবার রাজ্যের আসছেন অভিনেত্রী তথা বিজেপি নেত্রী রূপালি গঙ্গোপাধ্যায়। ইডির উদ্ধার করা টাকা বিলিয়ে দেওয়া হবে গরিবদের? ঠিক কি বললেন মোদী? ‘দেশে এমন কেউ জন্মেছে যে সিএএ বাতিল করতে পারে?’ সম্প্রতি, লোকসভা নির্বাচনের আবহেই বিজেপিতে যোগ দিয়ছেন রূপালি গঙ্গোপাধ্যায়। জল্পনা ছিলই, আর সেই জল্পনা সত্যি করেই বিজেপিতে যোগ দেন তিনি। দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে গিয়ে গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেন হিন্দি টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রুপালি গঙ্গোপাধ্যায়। তাকে দলে স্বাগত জানান খোদ বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। এদিকে আগামী ২০ মে রাজ্যে পঞ্চম দফার নির্বাচন। সেদিন বনগাঁ, ব্যরাকপুর, হাওড়া, শ্রীরামপুর, উলুবেড়িয়া, আরামবাগ ও হুগলীতে ভোট গ্রহণ। আর তার আগে ১৮ মে শেষ নির্বাচনী প্রচারে ‘চমক’ দিতে চলেছে পদ্ম শিবির। শনিবার শ্রীরামপুর ও কলকাতা উত্তর কেন্দ্রে রোড শো করবেন রূপালি। তবে লোকসভা নির্বাচনের আগে থেকে রাজ্যে একাধিকবার এসেছেন কেন্দ্রের হেভিওয়েটরা। যোগী, নাড্ডা থেকে শুরু করে এসেছেন রাজনাথ সিংও। একাধিক বার যেমন এসেছেন শাহ তেমনই নরেন্দ্র মোদীও দাপটের সঙে রাজ্যে ভোট প্রচার করেছেন। আর এবার আসছেন তারকা মুখ তথা বাংলার মেয়ে রূপালি গঙ্গোপাধ্যায়। শ্রীরামপুরের  প্রার্থী কবীরশঙ্কর বোস ও কলকাতা উত্তরের  প্রার্থী তাপস রায়ের সমর্থনে রোড শো করবেন তিনি।

আরো পড়ুন »
two-women-allegedly-killed

বাড়িতেই দুই বোনকে কুপিয়ে খুন! কী কারণে এই নারকীয় হত্যাকাণ্ড?

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে : বারন্দায় ভেসে যাচ্ছে রক্ত। পড়ে রয়েছে কুপিয়ে দু’টুকরো করে দেওয়া দুই বোনের নিথর দেহ। সাতসকালে এমন দৃশ্যর স্বাক্ষী থাকলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার পাথরপ্রতিমা ব্লকের গুরুদাসপুর এলাকার বাসিন্দারা। এই ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এলাকাবাসীরা। তড়িঘড়ি খবর দেন পুলিশকে। পুলিশ এসে দেহ দুটি উদ্ধার করে। ইডির উদ্ধার করা টাকা বিলিয়ে দেওয়া হবে গরিবদের? ঠিক কি বললেন মোদী? কী কারণে এই নারকীয় হত্যাকাণ্ড? সূত্রের খবর, দুই বোন ওই বাড়িতে একাই থাকতেন। তাদের এক জামাইবাবু এসে মাঝে মাঝে দেখাশোন করে যেতেন। শুক্রবার সকালে দুই বোনের কোনও সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীরা বাড়িতে খোঁজ নিতে যান। তখনই দুই বোনের দেহ থেকে আঁতকে ওঠেন প্রতিবেশীরা। দুই বোনের হাড়হিম করা হত্যাকাণ্ড নিয়ে কেন্দ্র করে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। নারকীয় এই হত্যাকাণ্ড নিয়ে ধন্দে পুলিশ। পুরনো কোনও শত্রুতার জেরে খুন নাকি খুনের পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তবে প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন মৃতদের বেশ কিছু সম্পত্তি রয়েছে। সম্পত্তির বিবাদের জেরেই খুন কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। অন্যদিকে অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেফতারের আশ্বাস দিয়েছেন তদন্তকারী

আরো পড়ুন »
Narendra Modi on Yoga day

‘দেশে এমন কেউ জন্মেছে যে সিএএ বাতিল করতে পারে?’

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে : পশ্চিমবঙ্গে সিএএ লাগু করাকে কেন্দ্র করে বারবার নরেন্দ্র মোদী সরকারকে আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে এর পাল্টা জবাব দিয়ে সিএএ যে লাগু হবেই তা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে হুঁশিয়ারও দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে অমিত শাহ সকলেই। এই নিয়ে বাকযুদ্ধও কম হয়নি। তবে সিএএ ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী হুঁশিয়ারি দেলেন বিরোধী সমাজবাদী পার্টি ও কংগ্রেসকে। ইডির উদ্ধার করা টাকা বিলিয়ে দেওয়া হবে গরিবদের? ঠিক কি বললেন মোদী? নির্বাচনী সভা থেকে বিরোধীদের কড়া হুঁশিয়ারি মোদীর উত্তরপ্রদেশের আজমগড়ে এক নির্বাচনী জনসভায় সিএএ নিয়ে বিরোধীদের তোজ দাগেন প্রধানমন্ত্রী। প্রসঙ্গত, আজমগড় হল সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এলাকা। এদিন জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী কংগ্রেস ও সমাজবাদী পার্টির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ তোলেন। দেশের বাজেট ভাগ করে সংখ্যালঘুদের জন্য ১৫ শতাংশ বরাদ্দ করতে চায় বলেও অভিযোগ করেন মোদী। কার্যত এদিনের সভা থেকে প্রধানমন্ত্রী সংখ্যালঘু তোষণকে হাতিয়ার করে সিএএ নিয়ে বিরোধীদে নিশানা করেন। কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, সমাজবাদী পার্টি এবং কংগ্রেসের মতো দলগুলি সিএএ ইস্যুতে মিথ্যা ছড়াচ্ছে। তারা উত্তরপ্রদেশ-সহ সারা দেশ দাঙ্গায় জ্বালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছিল। আজও এই ইন্ডিয়া জোটের লোকেরা বলে যে মোদি সিএএ এনেছেন এবং যেদিন তিনি যাবেন, সিএএ-ও সরিয়ে দেওয়া হবে। দেশ মে কোন মাই কা লাল প্যাদয়দা হুয়া হ্যায় জো সিএএ হটা সাকে? (এই দেশে এমন কেউ কি জন্মেছে যে সিএএ বাতিল করতে পারে?) কেউ সিএএ অপসারণ করতে পারবে না।’ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন প্রসঙ্গে এদিন প্রধানমন্ত্রী স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেন, ‘সিএএ-র অধীনে উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। এঁরা সেইসব মানুষ যাঁরা দীর্ঘদিন ধরে শরণার্থী হিসাবে দেশে বসবাস করছেন এবং ধর্মের ভিত্তিতে দেশভাগের শিকার হয়েছেন।’ সব মিলিয়ে লোকসভা নির্বাচনের আবহে সিএএ ইস্যুতে গেরুয়া শিবির বিরোধীদের কোণঠাসা করছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল।

আরো পড়ুন »
NDA GOV

ইডির উদ্ধার করা টাকা বিলিয়ে দেওয়া হবে গরিবদের? ঠিক কি বললেন মোদী?

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে :  দেশজুড়ে একাধিক জায়গায় একাধিক অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। দিল্লির আবগারি দুর্নীতি মামলা, বিহারের জমির বিনিময়ে চাকরি দেওয়ার মামলা, রাজ্যের একাধিক দুর্নীতি যেমন কয়লা স্ক্যাম, রেশনে কারচুপি, শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলা, পুর নিয়োগ দুর্নীতি, গরু পাচার মামলা- সহ একাধিক দুর্নীতির তদন্তে নেমে কোটি কোটি টাকা উদ্ধার করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এমনকি খাটের তলা থেকে মিলেছে টাকার খনির সন্ধান। কোথাও আবার ব্যাগ ভর্তি লক্ষ লক্ষ টাকা। আর এই সকল দুর্নীতি থেকে মত ১.২ লক্ষ কোটি টাকা উদ্ধার করেছে ইডি এমনটাই জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর ইডির উদ্ধার করা এই কারি কারি টাকা সাধারণ মানুষকে দেওয়া যায় কি না সেই চিন্তাই করছেন প্রধানমন্ত্রী। পাকিস্তানের সংসদে ক্ষোভ! ভারতের উত্থানের গাথা গেয়ে নিজের দেশকে তুলোধোনা করলেন পাকিস্তানি সাংসদ এ রাজ্য দেশ এতদিন ধরে টাকার পাহাড় দেখেছে। গোটা বঙ্গবাসী রাত জেগে সেই টাকা গোনার সাক্ষীও থেকেছেন। এমনকি টাকা গুনতে গুনতে খারাপ হয়ে গিয়েছে টাকা গোনার মেশিনও। কিন্তু তবুও সেই বিপুল পরিমাণ টাকার অঙ্কটা ছিল এক প্রকার অজানা। আর এসব দেখে স্বাভাবিকভাবেই একটা প্রশ্ন অনেকের মনেই জেগেছে। যে এত টাকা উদ্ধার তো হচ্ছে, কিন্তু সে টাকা যাচ্ছে কোথায়? তবে ইডির বাজেয়াপ্ত করা টাকা আরবিআই- এই জমা করা হয়। কিন্তু এবার সে টাকা সাধারণ মানুষকে দেওয়া যায় কি না তা নিয়েই ভাবছেন মোদী। সম্প্রতি, এক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথাই জানিয়েছেন। মোদী জানিয়েছেন, বিভিন্ন দুর্নীতি মামলায় ইডির উদ্ধার করা টাকা দেশের গরিব মানুষকে দেওয়া যায় কি না, তা নিয়ে  ইতিমধ্যেই তিনি আইনি বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনাও করছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এও জানিয়েছেন যে, নিজেদের ক্ষমতার অপব্যবহার করে সাধারণ মানুষের টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে। তাই তিনি এটাই মনে করেন যে, সেই টাকা গরিব মানুষদেরই ফেরত পাওয়া উচিত। এর জন্য যদি আইনত কোনও পরিবর্তন আনতে হয়, তবে তিনি তা করতে প্রস্তুত। তিনি এ নিয়ে বলেছেন, ন্যায় সংহিতায় এই নিয়ে কিছু ধারা রয়েছে কিনা তা নিয়ে তিনি লিগ্যাল টিমের সঙ্গে কথা বলছেন।

আরো পড়ুন »
shekh sahajahan property issue

এবার শেখ শাহজাহানের ১৪ কোটির সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল ইডি

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে: এবার জমি দখল মামলায় শেখ শাহজাহানের ১৪ কোটির সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল ইডি। এর আগেও ১২ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছিল ইডি। এবার শাহজানের পরিবার-সহ ১৪ কোটির সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত। ভোটের মুখে সন্দেশখালি নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! বছরের শুরু থেকেই সন্দেশখালি নিয়ে উত্তাল রাজ্য-রাজনীতি। দফায় দফায় বিক্ষোভ সাধারণ মানুষের। কার্যত দেওয়ালে পীঠ ঠেকে গিয়েছিল। তাই সামনে শাসক দলের গড়া প্রাচীর ভেঙে রণমূর্তি নিয়েছে সেখানকার মহিলারা। এদিকে সন্দেশখালির পলাতক বাঘ এখন শিঘরে ‘বাঘরোল’। জমি বাড়ি- সহ একাধিক সম্পত্তি এখন তার নাগালের বাইরে। তবে, যতই দিন এগোচ্ছে ততই যেনও জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে সেখানকার পরিস্থিতি। এত দিন সেখানে শাসকদলের প্রভাবশালীদের দাপট তো ছিলই এবার পুলিশি ধরপাকড়ের বিরুদ্ধে পথে মহিলারা। এমনকি রাত জেগে মহিলারাই পাহারা দিচ্ছে গ্রাম। এই অবস্থায় সন্দেশখালিতে ক্যাম্প করে সমস্যার সমাধানে সিবিআই। এরই মধ্যে ফের শাহজাহানের কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। এর আগে মার্চ মাসে পিএমএলএ-র আওতায় প্রায় ১৩ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। আর এবারও জমি ও টাকা-সহ ১৪ কোটির সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়। একটি বিবৃতি দিয়ে ইডি জানিয়েছে, বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজের মাধ্যমে অর্জিত অর্থ, বিভিন্ন অস্থাবর সম্পত্তি ছিল শাহজাহানের। তারমধ্যে সন্দেশখালি এবং কলকাতায় থাকা শাহজাহানের অ্যাপার্টমেন্ট, কৃষিজমি,  মাছ চাষের জমি, বসত এলাকার জমি- সহ প্রচুর সম্পত্তিও রয়েছে। https://youtu.be/dlc7Wu1OxL4

আরো পড়ুন »
KATHI BJP WORKER MURDER CASE

ভোটের মুখে সন্দেশখালি নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের!

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে: বছরের শুরু থেকেই সন্দেশখালি নিয়ে উত্তাল রাজ্য-রাজনীতি। দফায় দফায় বিক্ষোভ সাধারণ মানুষের। কার্যত দেওয়ালে পীঠ ঠেকে গিয়েছিল। তাই সামনে শাসক দলের গড়া প্রাচীর ভেঙে রণমূর্তি নিয়েছে সেখানকার মহিলারা। যতই দিন এগোচ্ছে ততই যেনও জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে সেখানকার পরিস্থিতি। এত দিন সেখানে শাসকদলের প্রভাবশালীদের দাপট তো ছিলই এবার পুলিশি ধরপাকড়ের বিরুদ্ধে পথে মহিলারা। এমনকি রাত জেগে মহিলারাই পাহারা দিচ্ছে গ্রাম। এই অবস্থায় সন্দেশখালিতে ক্যাম্প করে সমস্যার সমাধানে সিবিআই। ৩ লক্ষের জমি স্ত্রীকে পাইয়ে দিয়েছেন জলের দামে! প্রাক্তন চেয়ারম্যান দেবাশীসের বিরুদ্ধে মামলায় প্রধান বিচারপতির কড়া নির্দেশ সন্দেশখালিতেই এবার ক্যাম্প করছে সিবিআই। হাইকোর্টের নির্দেশে সন্দেশখালির মানুষের জমি দখল সংক্রান্ত অভিযোগ নেওয়ার জন্য এবার ‘অন দ্যা স্পট’ সিবিআই। জানা গিয়েছে, আজ থেকেই সন্দেশখালিতে ক্যাম্প করবে সিবিআই। সিবিআই ক্যাম্পে নিরাপত্তার জন্য ২ প্ল্যাটুন সিআরপিএফ মোতায়েন থাকবে।

আরো পড়ুন »

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

ঠিকানা