বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

PM Narendra Modi

বারাণসীতে কৃষক সন্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

ব্যুরো নিউজ, ১৯ জুন: লোকসভা নির্বাচনে জয়লাভের পর বারাণসীতে কৃষক সন্মেলনে যোগ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই কেন্দ্র থেকে টানা তিনবার জয়লাভ করেছেন মোদী। এদিন সন্মেলনে যোগ দিয়ে তিনি পিএম কিসান সম্মান নিধি প্রকল্পের আওতায় ১৭ তম কিস্তি বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী। এই প্রকল্পের আওতায় থাকা প্রায় ৯.২৬ কোটিরও বেশি কৃষক কুড়ি হাজার কোটি টাকার বেশি আর্থিক সুবিধা পাবেন। এদিনের সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, কৃষিমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান সহ অন্যান্য মন্ত্রীরা। এবার IAS অফিসার হবে AI? সরকারি পদেও ভাগ বসাবে AI? সারপ্রাইজ ভিজিটে গেলেন স্টেডিয়ামে এই কৃষক সন্মেলন থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কৃষকদের উন্নয়নের জন্য বিজেপি সরকার কী কী কাজ করেছে সেই সমস্ত বিষয় তুলে ধরেন। ‘বাবা বিশ্বনাথ, মা গঙ্গার আশীর্বাদ এবং কাশীর মানুষের ভালোবাসায় তৃতীয়বার দেশের প্রধান সেবক হয়েছি।’ এমন কথাও বলতে শোনা যায় প্রধানমন্ত্রী মোদীকে। এদিন কৃষক সন্মেলন শেষে প্রধানমন্ত্রী গঙ্গা আরতি করেন। এরপর সারপ্রাইজ ভিজিট করতে চলে যান বারাণসীর একটি নির্মিয়মান স্টেডিয়ামে। সেখানে গিয়ে সমস্ত কাজ খতিয়ে দেখেন। স্টেডিয়ামের কর্মকর্তা ও শ্রমিকদের সঙ্গে কথাও বলেন। যুব সমাজের উন্নতি সাধনেই এই স্টেডিয়াম তৈরি হচ্ছে, যাতে খেলার প্রশিক্ষণের জন্য আগামী প্রজন্মকে রাজ্যের বাইরে যেতে না হয় তার জন্য স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হচ্ছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আরো পড়ুন »
charles controvercy

রাজা চার্লস-এর প্রতিকৃতি ঘিরে বিতর্ক! দৈত্যের সঙে তুলনা!

ব্যুরো নিউজ, ১৭ মে : রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ- এর পর সিংহাসন পান তার ছেলে চার্লস। গত বছরের মে মাসের ৬ তারিখ তাঁর রাজ্যভিষেক হয়। বছর খানেক পরেই গত মঙ্গলবার নিজের প্রথম প্রতিকৃতির উদ্বোধন করেন রাজা চার্লস। আর সেই ছবি প্রকাশ্যে আসতেই জোর চর্চা। পাকিস্তানের সংসদে ক্ষোভ! ভারতের উত্থানের গাথা গেয়ে নিজের দেশকে তুলোধোনা করলেন পাকিস্তানি সাংসদ সম্প্রতি রাজা চার্লস-এর যে প্রতিকৃতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে, সেই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, রাজা চার্লস-এর চার দিকে লাল রং। এক ঝলক দেখলে মনে হবে তিনি যেনও লাল রং-এর রক্তের সমুদ্রের মাঝে দাড়িয়ে রয়েছেন। তাঁর গায়ে রয়েছে, ওয়েলশ গার্ডদের উর্দি। কারন ১৯৭৫ সালে এই বাহিনীতেই কর্মরত ছিলেন প্রিন্স অফ ওয়েলশ। ইডির উদ্ধার করা টাকা বিলিয়ে দেওয়া হবে গরিবদের? ঠিক কি বললেন মোদী? তবে তাঁর প্রথম প্রতিকৃতির ছবি প্রকাশ করতেই শুরু হয় চর্চা। ধেয়ে আসা নানা বিধ মন্তব্য। ওনেকেই তাঁর সেই প্রতিক্রিতি দেখে রাজাকে যম বা দৈত্যের সঙে তুলনা করেছেন। অনেকেরই মনে হয়েছে, রাজা চার্লসের চার দিকের ওই লালা রং যেনও রক্তের সমুদ্র। আর তিনি সেই রক্তের সমুদ্রের মধ্যে দাড়িয়ে রয়েছেন।  ছবিটিতে লাল রং-য়ের অত্যাধিক ব্যবহারের জন্য ছবিটি নারকীয় রুপ নিয়েছে বলেও অনেকের মত। তবে ছিবিটি যে শুধু কটাক্ষেরই শিকার তা নয়। রাজা চার্লসের ছিবিটির বহু মানুষ প্রশংসাও করেছেন। ছবিতে রাজার ডান কাঁধের কাছে প্রজাপতিটি বহু প্রশংসাও কুড়িয়েছে।  

আরো পড়ুন »
sandeshkhali-trinamool-leader-shankars-house-vandalized

ভাইরাল ভিডিয়োর বিতর্কের মাঝেই সন্দেশখালি থেকে উদ্ধার অস্ত্র

ব্যুরো নিউজ, ১১ মে, : ভাইরাল কেন্দ্র করে যখন উত্তপ্ত সন্দেশখালি, তখন ফের অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল সন্দেশখালিতে। স্থানীয় বাসিন্দারা দুষ্কৃতীদের কাছ থেকে দেশি ভাঙা বন্দুক উদ্ধার করেছে বলে খবর। ঘটনার সঙ্গে শাহজাহানের অনুগামীরা জড়িত বলে দাবি স্থানীয়দের। শাহজাহান অনুগামীরা যুক্ত, দাবি স্থানিয়দের !! উল্লেখ্য, শুক্রবার সন্দেশখালির জেলিয়াখালির পিয়ারা খালি ফেরিঘাট সংলগ্ন এলাকায় কিছু দুষ্কৃতী আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে জড়ো হয় বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। দুষ্কৃতীদের হাতে একটি ব্যাগ ছিল। সেই ব্যাগে ভাঙা বন্দুকও ছিল বলে এসেছিল। এলাকাবাসীদের দেখে দুষ্কৃতীরা অস্ত্র ফেলে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা সেই অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবিও জানিয়েছে এলাকাবাসীরা। মুক্তি পেল ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি’ ছবির পোস্টার! ক্রিকেট প্রেমের গল্পে দেখা যাবে কোন দুই তারকাকে? প্রসঙ্গত, দ্বিতীয় দফার নির্বাচনের দিনই সন্দেশখালিতে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছিল। শুধু অস্ত্র নয় উদ্ধার হয়েছিল বিস্ফোরকও। নামাতে হয়েছিল NSG কমান্ডো। এনএসজির রিমোটচালিত রোবট নামানো হয়। যত সময় গড়িয়েছে রহস্য তত বেড়েছে। সব মিলিয়ে রিমোট নামিয়ে বিস্ফোরক উদ্ধার কার্যত সন্দেশখালির সৌজন্যে সেদিন রাজ্যবাসী প্রথম দেখল। শাহজাহান শেখের ঘনিষ্ঠের বাড়ি থেকে বিদেশি অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় রাজনৈতিক তরজাও হয়েছে প্রচুর। এই আবহের রেশ কাটতে না কাটতেই শুক্রবার রাতে ফেরে সন্দেশখালি থেকে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে

আরো পড়ুন »
suhana-khan

এখনো হননি বলিউডের তারকা, তার আগেই লাক্স ব্র্যান্ডের মুখপাত্র নির্বাচিত হলেন এই অভিনেত্রী !

ব্যুরো নিউজ, ১ মে: জনপ্রিয় সাবান প্রস্তুতকারক সংস্থার মুখ হলেন বলি জগতের এই অভিনেত্রী। দিচ্ছেন একের পর এক চমক। যদিও এখনো বলিউডে সেভাবে পাকাপোক্ত জায়গা করে নিতে তিনি পারেননি। বিগবাজেটের ছবিতে সই করেছেন মাত্র। তবে তার আগেই জনপ্রিয় সাবান প্রস্তুতকারক সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হলেন এই অভিনেত্রী। মুম্বইতে আয়োজিত বিপণীর অনুষ্ঠানে রীতিমত লাইম লাইট কেড়ে নিলেন একাই। ভাবছেন কার কথা বলছি? কে এই অভিনেত্রী ? ভাবছেন কার কথা বলছি? কে এই অভিনেত্রী? শাহরুখ খানের কন্যা সুহানা খান। লুক এবং ফ্যাশন স্টেটমেন্ট দিয়ে সকলের নজর কাড়লেন এই উঠতি অভিনেত্রী। ২৯ এপ্রিল সুহানা খানকে ঘোষণা করা হয়েছে জনপ্রিয় সাবানের ব্র্যান্ড লাক্স-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে। ইতিপূর্বে শাহরুখ খানও এই ব্র্যান্ডের মুখ ছিলেন। লাক্স বলিউডের বিভিন্ন অভিনেত্রীদের প্রচার মুখ করে আসছে অনেক দিন ধরেই। এবার সুহানা হলেন লাক্সের নতুন মুখ। এখনো শাহরুখের কন্যা সেই অর্থে তারকা নন। তবুও লাক্স ব্র্যান্ডের মুখ হওয়া তাঁর কাছে নিঃসন্দেহে এক বড় প্রাপ্তি। নতুন বিজ্ঞাপনের শ্যুট সোমবার থেকে শুরু হয়। এদিন বেগুনি রঙের অফ-শোল্ডার শর্ট ড্রেসে পোশাক লাক্সের বিপণীর অনুষ্ঠানে হাজির হলেন সুহানা। খোলা চুলে যেনো একটু বেশীই অনবদ্য লাগছে তাঁকে। প্রসঙ্গত, ২০০৫ সালে সুহানার বাবা শাহরুখ খান লাক্সের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন। যদিও সেই সময় শাহরুখ ছিলেন বলিউড সুপারস্টার। তাই বলতে গেলে বলিউডের প্রথম তারকা সন্তান সুহানা অভিনেত্রী হওয়ার পর এত দ্রুত লাক্সের বিজ্ঞাপনে সুযোগ পেয়েছেন। লাক্স ব্র্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে ধন্য হন বলিউডের ডিভারা। সেক্ষেত্রে সুহানা খান যে ঢের গুণে লাকি, তা বলাই বাহুল্য

আরো পড়ুন »
nadia distric shek sikder

‘কাঁচালঙ্কা বেটে মুখে মাখছেন, তবুও একদম ফিট’ নদিয়ার শেখর সিকদারের কীর্তিতে চক্ষু চড়কগাছ সবার

ব্যুরো নিউজ, ৩০ এপ্রিল: এ যেনো রূপকথার গল্পকথা। নদিয়ার শেখর বাবুর এই কীর্তিতে চোখ ছানাবড়া হয়েছে আট থেকে আশি সবার। তিনি কখনও মুখে মাখছেন ৫০০ গ্রাম লঙ্কা আবার কখনও খাচ্ছেন ১ কেজি লঙ্কা। যেখানে সাধারন মানুষের অল্প ঝালেই জ্বালা অনুভব হয়, সেখানে তিনি রোজ মুখে মাখছেন  ৫০০ গ্রাম লঙ্কা। কী ভাবতে অবাক লাগছে তাই না? অবাক হওয়ার মতোই কথা। সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে যেটি একেবারেই অসম্ভব। সেটিই তিনি বাস্তবে করে দেখিয়েছেন। আর এতে হতবাক হয়েছেন সকলেই। শাহজাহানের আত্মীয় ও শাগরেদদের তলব করল ইডি! র‍্যাডারে রয়েছে দুজন মন্ত্রী শেখর বাবুর এই কীর্তিতে চোখ ছানাবড়া হয়েছে সবার ওই যুবকের কীর্তি ইতিমধ্যেই সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। শেখর সিকদার নদিয়ার রানাঘাট ২ নম্বর ব্লকের আইসমালি এলাকার বাসিন্দা। সূত্রের খবরে জানা গিয়েছে, তিনি কেজি কেজি লঙ্কা কেনেন প্রতিদিন নিয়ম করে। বিষয়টাকে কেউ বিশেষ গুরুত্ব দেয়নি প্রথমদিকে। কিন্তু বিক্রেতাদের মনে পরবর্তীতে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। এরপরই প্রকাশ্যে আসে আসল ঘটনা। শেখর এত লঙ্কা দিয়ে কী করেন? এই প্রশ্নের উত্তরে শেখর বাবু জানান, তিনি মুখে মাখেন বাটা লঙ্কা। প্রায় কেজিখানেক লঙ্কা খেয়ে সাবার করেন। তবে সাধ থাকলেও সাধ্যে কুলোয় না লঙ্কার দাম বেড়ে গেলে। এরপর যখন শেখর বাবুকে জিজ্ঞেস করা হয়, ‘জিভে ঝাল কিংবা মুখে জ্বালা অনুভব করেন না?’ এই প্রশ্নের উত্তরে শেখর বাবু পালটা প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে বলেন, “জ্বলবে কেন, অ্যাসিড নাকি? আর স্বাদ বেশ ভালোই।” তাঁর আজব নিদান, “নিয়মিত কাঁচা লঙ্কা বাটা মুখে মাখলে চেহারায় কোনওদিন বয়সের ছাপ পড়বে না। আর নিয়মিত কাঁচালঙ্কা খেলে অটুট থাকবে চোখের জ্যোতিও ,এতেই নাকি এড়ানো যাবে হৃদরোগ ও স্নায়ুর সমস্যা। ” শুধু তাই নয়, এই প্রসঙ্গে শেখর বাবুর বৃদ্ধ মা জানাচ্ছেন, “আগে তো এত সব মেশিনপত্র ছিল না। অনেক বড় সংসার বাংলাদেশে। ঢেঁকিতে শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো করে বস্তায়বন্দি করে ঘরে রেখে দিয়েছিলাম। শেখর তখন বছর দুয়েকের। হামাগুড়ি দিয়ে সেই বস্তার কাছে গিয়ে সব শুকনো লঙ্কা বের করে গায়ে মেখে বসেছিল। বাড়িতে তো কান্নাকাটি শুরু। সবাই মিলে দুধ, দই, ঘোল, ঢেলে পরিষ্কার করা হলো। আমরা কেঁদে যাচ্ছি আর ছেলে মুচকি মুচকি হাসছে! তারপর থেকেই একটা দুটো করে লঙ্কা খায়। বড় হওয়ার পর থেকে চুরি করে খেত। এখন তো নিজে আনে নিজেই খায়।” এই মানুষটিকে দেখলে অবাক হবেন মুখে লঙ্কা বাটা মেখে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছেন। চোখ মুখ কোনটাই জ্বালা করছে না। স্বাভাবিক মানুষের মত হাঁটাচলা করছেন কথা বলছেন দিব্যি আবার উপদেশও দিচ্ছেন যে এমন লঙ্কা বাটা প্রতিনিয়ত মুখে মাখলে নাকি কোনদিন বয়সের ছাপ পড়বে না। তবে খবরদার এই ব্যক্তির কথা শুনে আপনারা যেন ভুলেও তা প্রয়োগ করতে যাবেন না নিজের মুখের ওপর।

আরো পড়ুন »
ghure ashi: dooars

ঘুরে আসি: পাহাড় ভালোবাসেন? সবুজ পাহাড়ে ঘেরা ডুয়ার্সে যাওয়ার প্ল্যান করুন

ঘুরে আসি: পাহাড় ভালোবাসেন না এমন মানুষের সংখ্যা বোধহয় কম। আর পাহাড়ে ঘুরতে যাওয়ার কথা মনে হলে ডুয়ার্সের নামটাই যেন আগে মনে আসে। চোখের সামনে ভেসে ওঠে সবুজ এক পাহাড়। যেখানে রয়েছে নদী, জঙ্গল আর পাহাড়িয়া গ্রামের হাতছানি। ডুয়ার্স যাওয়ার প্ল্যান করলে অন্তত ১০-১২ দিনের ছুটি নিয়ে যেতে হবে। বাচ্চাদের টিফিন নষ্ট হয়ে যাচ্ছে? নো চিন্তা! পরিবেশন করুন চিঁড়ের পোলাও, নষ্ট হওয়ার কোনো চান্স ই নেই! ডুয়ার্স ভ্রমণে জঙ্গল সাফারি উপভোগ করুন তার সাথে সবুজ পাহাড়ে ঘেরা ডুয়ার্স ডুয়ার্স ঘন বন, অনন্য বন্যপ্রাণী, সর্বদা হাস্যোজ্জ্বল মানুষ এবং তাদের সংস্কৃতির জন্য বেশ বিখ্যাত। গত দুই দশকে, গোরুমারা জাতীয় উদ্যান, বক্সা টাইগার রিজার্ভ, জলদাপাড়া বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য, নেওরা ভ্যালি ন্যাশনাল পার্ক এবং চাপরামারী বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের মতো কিছু উল্লেখযোগ্য বনের কারণে ডুয়ার্স শান্ত এবং সৌন্দর্য-সন্ধানী পর্যটকদের মধ্যে একটি ভ্রমণ গন্তব্য হয়ে উঠেছে। এটি জঙ্গল সাফারি, জিপ সাফারি, এলিফ্যান্ট সাফারি এবং আরও অনেক কিছুর কারণেও বেশ জনপ্রিয়। ডুয়ার্সে গেলে কী কী দেখবেন- গোরুমারা জাতীয় উদ্যান ডুয়ার্সে দেখার জন্য প্রচুর আকর্ষণীয় স্থান রয়েছে এবং গোরুমারা জাতীয় উদ্যান তাদের মধ্যে একটি। মূর্তি এবং জলঢাকা নদীর তীরে অবস্থিত, গোরুমারা জাতীয় উদ্যান একশৃঙ্গ গন্ডারের জন্য বেশ বিখ্যাত। এটি অনেক বন্য প্রাণী যেমন হাতি, ভারতীয় বাইসন (সাধারণত গৌড় নামে পরিচিত), চিতাবাঘ (স্থানীয়ভাবে চিটাবাগ নামে পরিচিত), রক পাইথন, মালয়ান জায়ান্ট কাঠবিড়ালি এবং হরিণের প্রাকৃতিক বাসস্থান। আপনার ডুয়ার্স ট্যুরে জঙ্গল সাফারি উপভোগ করুন এবং বন্য প্রাণীদের কাছাকাছি আসার সুযোগ পান। জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যান ডুয়ার্স ভ্রমণে জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যান হল আরেকটি আকর্ষণীয় স্থান। পূর্ব হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত, পার্কটি বিভিন্ন বন্যপ্রাণী এবং গাছে পরিপূর্ণ। জঙ্গল সাফারি বা জিপ সাফারি করে একশৃঙ্গ গন্ডার, বাঘ, হাতি, চিতাবাঘ এবং আরও অনেক কিছু দেখার সুযোগ পান। চাপড়ামারী বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য ডুয়ার্সে গেলে চাপরামারী বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যে যাওয়া মিস করবেন না। বাঘ, হরিণ, একশৃঙ্গ গন্ডার, চিতাবাঘ এবং আরও অনেক কিছুই দেখতে পারবেন। প্যারাকিট, কিংফিশার এবং সবুজ পায়রা আকাশের উপরে উড়ে যাওয়া কিছু অনন্য পাখি দেখে অবাক হয়ে যাবেন।অতএব, আপনি যদি চাপরামারী বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের সৌন্দর্য উপভোগ না করেন তবে আপনার ডুয়ার্স ভ্রমণ অসম্পূর্ণ থেকে যায়। বক্সা টাইগার রিজার্ভ বক্সা টাইগার রিজার্ভ হল ডুয়ার্সের অন্যতম দর্শনীয় স্থান। আলিপুরদুয়ার থেকে মাত্র ১০ কিমি দূরে বক্সা টাইগার রিজার্ভ হল বাঘ, চিতাবাঘ, হাতির কালো প্যান্থার, মেঘযুক্ত চিতা, হিমালয় কালো হরিণ, গৌড়, অজগর এবং আরও অনেক অনন্য বন্য প্রাণীর প্রাকৃতিক আবাসস্থল। ঝালং, বিন্দু ও পারেন ডুয়ার্স শুধু বন এবং বন্যপ্রাণী সম্পর্কে নয়। সম্পূর্ণ নির্মলতা, মনোরম উপত্যকা, নদীর ধারে পিকনিক স্পট, চা বাগানের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের জন্য অনেক গন্তব্যও পরিচিত। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২০০০ ফুট উচ্চতায়, বিন্দু হল একটি সচিত্র গ্রাম যার পটভূমিতে ভুটান পাহাড়ের সুন্দর দৃশ্য রয়েছে। আপনি এখানে জলঢাকা নদীর উপর নির্মিত একটি বাঁধ দেখতে পাবেন। ঝালং এবং পারেন কাছাকাছি দুটি পর্যটন আকর্ষণ যা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর। সামসিং, সুনতালেখোলা ও রকি আইল্যান্ড স্যামসিং, সুনতালেখোলা এবং রকি আইল্যান্ড ডুয়ার্সের আরও তিনটি অফবিট গন্তব্য। শিলিগুড়ি থেকে ৮৫ কিমি ড্রাইভিং দূরত্বের বেশি নয়। সামসিং হল একটি সচিত্র গ্রাম যা এর ভয়ঙ্কর পাহাড় এবং চা বাগানের জন্য পরিচিত। নেওরা ভ্যালি ন্যাশনাল পার্কের পরিধিতে অবস্থিত, সুনতালেখোলা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং নির্মলতার অফার সম্পর্কে। একই অবস্থা মূর্তি নদীর তীরে অবস্থিত রকি দ্বীপেও। এই সমস্ত অফবিট গন্তব্যগুলি তাদের জন্য একটি নিরাপদ আশ্রয়স্থল হয়ে উঠেছে যারা প্রকৃতির মাঝে সময় কাটাতে চান। মূর্তি ও জয়ন্তী নদীর তীর মূর্তি এবং জয়ন্তী নদীর তীরও ডুয়ার্সে দেখার জন্য দুটি আকর্ষণীয় স্থান। নদীর তীরের আশেপাশের জায়গা দর্শন করতে পারেন। কীভাবে যাবেন- ট্রেনে গেলে নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশনে নেমে গাড়ি করে যেতে হবে। ফ্লাইটে গেলে নিকটবর্তী বিমানবন্দর বাগডোগরা। ওখানে নেমে গাড়ি ভাড়া করে যেতে হবে।

আরো পড়ুন »
sougata roy election campain

সমস্যায় জর্জরিত এলাকাবাসী,পানীয় জলের দাবিতে সৌগত রায়কে ঘিরে বিক্ষোভ মহিলাদের

ব্যুরো নিউজ, ৩০ এপ্রিল: এবার নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন দমদম লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী সৌগত রায়। পানিহাটি পুরসভার ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডে কদমতলা এলাকার ঘটনা। পানিহাটিতে নাগরিক পরিষেবা কার্যত বেহাল। পানীয় জল থেকে শুরু করে বিদ্যুৎ, জঞ্জাল থেকে নিকাশি, রাস্তাঘাট একাধিক সমস্যায় জর্জরিত এলাকাবাসী।গরমের মধ্যেই চলছে পানীয় জলের সমস্যা। ফলে ক্ষোভ বাড়ছে স্থানীয় বাসিন্দাদের। বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে বিড়ম্বনায় শাসক দল এরই মধ্যে সোমবার সকালেই ফের পানীয় জলের দাবিতে বাড়ির মহিলারা রাস্তায় বিক্ষোভ দেখান। একেই গরমে জর্জরিত, এরই মধ্যে পুরসভার দেওয়া পাইপ লাইন দিয়ে একটুও জল পড়ছে না। এই দাবিতে মহিলারা যখন রাস্তায় বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন তখন প্রচার সেরে ফিরছিলেন দমদম লোকসভার প্রার্থী সৌগত রায়। তাঁকে দেখে মহিলারা চিৎকার করে বলে ওঠেন, ৬ দিন ধরে জল নেই। এই গরমে কী করে বাঁচব? পুরসভার কাছে বার বার গিয়ে আবেদন করেছি। কোনও লাভ হয়নি। আপনি কিছু একটা করুণ। শাহজাহানের আত্মীয় ও শাগরেদদের তলব করল ইডি! র‍্যাডারে রয়েছে দুজন মন্ত্রী এর পরেই সৌগত রায় অবরোধকারীদের সামনে পুরসভার চেয়ারম্যান ইন কাউন্সিল তীর্থঙ্কর ঘোষের সঙ্গে কথা বলেন। পরে, কেএমডিএ-র সঙ্গে কথা বলেন। এরপরই স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলরা সেখানে হাজির হন। পানীয় জলের সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দেওয়ার পর অবরোধ ওঠে।অন্যদিকে বিক্ষোভের কথা উড়িয়ে দিয়ে তৃণমূল প্রার্থী সৌগত রায় বলেন, আমাকে দেখে বিক্ষোভ কেউ দেখাইনি। আসলে তাঁরা নিজেদের দাবি কথা জানিয়েছেন। ৬দিন ধরে এলাকায় জল নেই। তাই, মহিলারা রাস্তা অবরোধ করেছিলেন। আমি পুরসভাকে জানিয়েছি। আশা করি, জলের সমস্যা মিটে যাবে। অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা কৌশিক চট্টোপাধ্যায় বলেন, এর থেকে লজ্জার আর কিছু হয় না। সাংসদ হিসেবে তিনি যে কিছু করেননি তা আবারও প্রমাণ হয়ে গেল। ভোট বাক্সে মানুষ এর জবাব দেবে।তবে ভোটের মুখে পানীয় জলের দাবিতে এভাবে দলীয় প্রার্থীকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখানোয় কিছুটা হলেও বিড়ম্বনায় শাসক দল, মত রাজনৈতিক দলের একাংশের।

আরো পড়ুন »
Narendra Modi on Yoga day

অষ্টমবার বঙ্গ সফরে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

ব্যুরো নিউজ, ২৯ এপ্রিল : তৃতীয় দফা ভোটের আগে নির্বাচনে প্রচারে ফের বঙ্গে আসছেন নরেন্দ্র মোদী। লোকসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে সাতবার বঙ্গ সফরে এসে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এবার এলে অষ্টমবার হবে। আগামী ৩ মে কৃষ্ণনগর, বর্ধমান পূর্ব, বোলপুরে জনসভা করার কথা রয়েছে নরেন্দ্র মোদীর। প্রথম দিনই তাঁর তিনটি সভা রয়েছে। কৃ্ষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অমৃতা রায়, বর্ধমান-পূর্বের প্রার্থী অসীম সরকার এবং বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী পিয়া সাহার সমর্থনে সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী। শাহর ভিডিও ভাইরাল হতেই হুলুস্থুলু! দায়ের FIR! কিন্তু কেন? বিরোধীদের চাপ বাড়াতে কোন ইস্যুকে হাতিয়ার করবেন মোদী? উল্লেখ্য, আগামী ৭ মে উত্তরের দুই আসনের সঙ্গে ভোট রয়েছে দক্ষিণবঙ্গেও। তার আগেই প্রার্থীদের মনোবল বাড়াতে বঙ্গে আসছেব মোদী। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবাংলায় যে কটা আসন বিজেপি জিতেছিল ২৪ এ তার থেকে বেশি আসন জয়লাভ করাই গেরুয়া শিবিরের এখন একমাত্র লক্ষ্য। আর সেই কারণে বঙ্গে লাগাতার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহা সকলেই। কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্রর বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী করেছে রাজমাতা অমৃতা রায়কে। প্রার্থী হওয়ার পর তাকে ফোনও করেন মোদী। এবার তার হয়ে প্রচারে নামবেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গে এসে প্রচার সভা থেকে নিয়োগ দুর্নীতি থেকে শুরু করে একাধিক ইস্যুতে তৃণমূল সরকারকে নিশানা করেছেন। এবার দেখার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কোন ইস্যুতে বিরোধীদের চাপ বাড়ান।

আরো পড়ুন »
healthy and testy poha recipe

বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন হেলদি এন্ড টেস্টি পোহা, ব্রেকফাস্টের সঙ্গে জাস্ট জমে যাবে

ব্যুরো নিউজ, ২৭ এপ্রিল: পোহা বেশ জনপ্রিয় একটি খাবার। অনেকেই ব্রেকফাস্টে পোহা খেয়ে থাকেন। এটি একদিকে যেমন হেলদি তেমনই টেস্টি। এতে হবেনা কোনও গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা। পেটও থাকবে হালকা। ছোট থেকে বড় সবাই এটি সানন্দে খেতে পারবেন। খেতে ভীষণই সুস্বাদু। চলুন দেখে নেওয়া যাক পোহার উপকরণ এবং রেসিপি গরমের তাপপ্রবাহে ঠোঁট ভিজিয়ে নিন ‘মহব্বত কি শরবত’ দিয়ে! মিলবে দারুণ প্রশান্তি উপকরণ সাদা তেল ঘি নুন, হলুদ, চিনি আলু,বিন্স,গাজর কুচি চিনে বাদাম সরষে হিং শুকনো লঙ্কা ছোলার ডাল বিউলির ডাল পিঁয়াজ কুচি চিঁড়ে লেবুর রস নারকেল কোরা কীভাবে বানাবেন পোহা পোহা বানাবার জন্য সাদা তেল এর সঙ্গে কিছুটা ঘী মিশিয়ে প্রথমে কিছুটা চিনে বাদাম ভেজে তুলে রাখতে হবে। তারপর দিতে হবে সর্ষে ফোড়ন , শুকনো লঙ্কা আর অল্প হিং। এরপর অল্প অল্প করে ছোলার ডাল বা বিউলির ডাল ফোড়ন এর মধ্যে দিয়ে তারপর দিতে হবে পেঁয়াজ কুঁচি। পেঁয়াজের সঙ্গে কারি পাতা টাও দিয়ে দেবো। পেঁয়াজ হালকা ভেজে বাকি সবজি গুলো যেমন আলু,বিন্স,গাজর চাইলে ক্যাপসিকাম সব দিয়ে সঙ্গে নুন আর হলুদ দিয়ে ভেজে নিতে হবে। পোহার স্বাদ একদমই মিষ্টি হয়না,কিন্তু দু চার দানা চিনি না দিলে টেস্টটা ব্যালান্স হয়না। তাই পরিমাণমত চিনি মিশিয়ে দিন। সবজি নরম হল ভেজানো চিঁড়ে টা দিয়ে ভালো করে নেড়ে চেড়ে ভাজা বাদাম গুলো মিশিয়ে দিতে হবে। এরপর ওপর থেকে লেবুর রস আর কিছুটা কোড়ানো নারকেল (অপশনাল)ছড়িয়ে পরিবেশন করুন দারুন স্বাদের পোহা।

আরো পড়ুন »
Miss Universe Buenos Aires Alejandra

৬০ বছর বয়সেই মিস ইউনিভার্স খেতাব জয়

ব্যুরো নিউজ, ২৮ এপ্রিল: বয়সের দিক থেকে দেখতে গেলে তিনি সিনিয়ার সিটিজেনের কোটায়। কিন্তু, সেই বয়সেই গড়লেন রেকর্ড। জিতলেন মিস ইউনিভার্স বুয়েনস আয়ার্স।  সমকামী প্রেম করলে ১৫ বছরের জেল! পাশ হল আইন ‘Age is just a number’-এটাই যেনও প্রমান করলেন আলেজান্দ্রা মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় নিজের ছেলে- মেয়ের বয়সী প্রতিযোগীদের হারিয়ে সেই খেতাব নিজের মাথায় তুলে নিলেন আর্জেন্টিনার আলেজান্দ্রা রদ্রিগেজ। যেই বয়সে দাড়িয়ে মানুষ তাদের যৌবন হারিয়ে ফেলে, চামরা কুচকে আসে, হাতে – মুখে পড়ে বলি রেখা। দাতের বাধনও আলগা হতে শুরু করে। যেই বয়সে দাড়িয়ে সৌন্দর্যের প্রতিযোগিতায় নামার কথা সচরাচর কেউ ভাবতেই পারেন না। সেই বয়সে দাঁড়িয়েই আলেজান্দ্রা জিতলেন  মিস ইউনিভার্স খেতাব। মিস ইউনিভার্সে অংশ গ্রহণকারী প্রতিযোগীদের বয়সসীমা তুলে দিতেই তৈরি হল এই নয়া রেকর্ড। মিস ইউনিভার্স বুয়েনস আয়ার্স প্রতিযোগিতার নিয়মে আনা হয়েছে বদল। আগে ১৮-২৮ বছর বয়সী নারীরাই অংশ নিতে পারতেন। তবে এবার থেকে অংশ গ্রহণকারী প্রতিযোগীদের বয়সসীমা তুলে দেওয়া হয়েছে। আর তাতেই সেরা সুন্দরীর তালিকায় নিজের নাম আনতে পেরেছেন আলেজান্দ্রা। আলেজান্দ্রা জানিয়েছেন, এখন নারীর সৌন্দর্য শুধুই তার শারীরিক সৌন্দর্য নয়, তার সৌন্দর্য মূল্যবোধ দিয়ে বিচার করা হয়। আর সেখানে দাড়িয়ে নতুন এই দৃষ্টান্ত তৈরি করতে পেরে তিনি যথেষ্ট রোমাঞ্চিত ও আপ্লুত।

আরো পড়ুন »

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

ঠিকানা