ব্যুরো নিউজ, ৬ নভেম্বর: বালির গাড়ি থেকে তোলা বেআইনি লক্ষ লক্ষ টাকা উড়ছে পানশালায়!

বিনা চালানের কিংবা ওভারলোড বালির গাড়ি থেকে বেআইনি ভাবে লক্ষ লক্ষ টাকা আদায় করে ফুলে ফেঁপে উঠেছে পূর্ব বর্ধমানের খন্ডঘোষ থানা এলাকার বেশ কয়েকজন যুবক। স্থানীয়দের একাংশের এই অভিযোগ ছিলই। এবার সামনে এলো সেই তোলাবাজ সিন্ডিকেটের এক পান্ডার কীর্তিকলাপ।

প্রশাসনের নজরদারির মধ্যেই বালির গাড়ি থেকে অবৈধভাবে আদায় করে লক্ষ লক্ষ টাকা বর্ধমান শহরের এক পানশালায় উড়িয়ে ফুর্তি করছে সেই পান্ডা, এমনটাই সূত্র মারফত খবর। এমনকি ওই ব্যক্তি নিজেও স্বশরীরে পানশালায় প্রায়ই হাজির হলেও মুখে মাস্ক পরে নিজের গোপনীয়তা লোকানোর চেষ্টা করে বলে জানা গেছে।

সূত্র মারফত  আরো জানা গেছে, খন্ডঘোষ এলাকার তোলাবাজির টাকায় ফুলে ফেঁপে ওঠা ওই ব্যক্তি পানশালায় না এলেও পছন্দের নর্তকীদের নাচ দেখতে পানশালার কর্মরত কর্মীদের ফোনে টাকা পাঠিয়ে নর্তকীদের নাচের ভিডিও দেখে অন্যত্র মদের আসরে বসে মস্তি লুটতেন।

৩৮ ঘন্টার যাত্রা এখন ১২ ঘন্টায়! মোদী-হাসিনার হাত ধরে চালু আগরতলা-আখাউড়া রেলপথ

কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে, কীভাবে প্রশাসনের নজরদারির মধ্যেই খন্ডঘোষ এলাকায় দিনের পর দিন বালির গাড়ি থেকে বেআইনি ভাবে টাকা তুলে যাচ্ছে এই সিন্ডিকেট?
স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের দাবি, খোদ পুলিশ প্রশাসনের একাংশের মদতেই এই অবৈধ কারবার চলে আসছে। এমনকি নিজেদের অধিক মুনাফা লাভের আশায়বালি ঘাট মালিকদের একাংশও এই সিন্ডিকেটের সঙ্গে হাত মিলিয়ে কাজ করছে বলে অভিযোগ।
এক্ষেত্রে লোডারদের কাছ থেকে সরাসরি গাড়ির নম্বর এবং নির্দিষ্ট টাকা (৩৫০০টাকা) এই সিন্ডিকেটের লোকেদের ফোনে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।
রাতে রাস্তায় পুলিশ যখন পণ্যবাহী ও বালির গাড়ির বৈধতা চেকিং করছে তখন সেই সমস্ত এন্ট্রি হওয়া গাড়ির নম্বর মিলিয়ে ছেড়ে দিচ্ছে বলে স্থানীয় অনেকের অভিযোগ।

স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, চারশো বালির গাড়ি চলে যাচ্ছে অনায়াসে বিনা চালান কিংবা ওভারলোড নিয়ে, আর মাত্র চারটে বালির গাড়ি ধরে পুলিশ বিশাল কাজ করছে বলে দেখানোর চেষ্টা করছে। এদিকে প্রায় প্রতিদিন বালির গাড়ি পাসিংয়ের এই সিন্ডিকেটের লোকেরা গাড়িওয়ালা দের কাছ থেকে লুটে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। স্বাভাবিকভাবেই এই ‘ক্ষতি’ পোষাতে বেড়ে যাচ্ছে বালির দামও।

এলাকাবাসীদের একাংশ রীতিমত প্রশ্ন তুলেছেন, এতো টাকা যাচ্ছে কোথায়? কাদের পকেটে ঢুকছে এই টাকা? উল্টে এক শ্রেণীর মাফিয়ারা বালির গাড়ি থেকে বেআইনি ভাবে লক্ষ লক্ষ টাকা তুলে নিজেরা বিপুল পরিমাণ সম্পত্তির মালিক হয়ে উঠছে।

সূত্রের খবর, এক রাতে পানশালায় ফুর্তি করতেই এই বালি সিন্ডিকেটের এক পান্ডা কয়েক লক্ষ টাকা উড়িয়ে দিচ্ছে। এমনটাই জোর চর্চা শুরু হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে, কিভাবে, কাদের মদতে চলছে এই সিন্ডিকেট রাজত্ব? এমনও জানা যাচ্ছে, নিজের কুকীর্তির কথা জানাজানি হতেই খন্ডঘোষ এলাকা থেকে গা ঢাকা দিয়েছে ওই সিন্ডিকেটের পান্ডা। সংবাদ মাধ্যমের সাহায্য নিয়ে লেখা। ইভিএম নিউজ

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর