TMC

শর্মিলা চন্দ্র, ৮ মে : নিজের দলের নেত্রীকেই কুপ্রস্তাব! হ্যাঁ এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠছে তৃণমূলের এক কর্মীর বিরুদ্ধে। সূত্রের খবর, কোন্নগর পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলর ছিলেন ওই নেত্রী। অভিযোগ প্রায় প্রতিদিন রাতে ওই নেত্রীকে ফোন করে নানা রকম কুপ্রস্তাব দিত ওই কর্মী। বাড়ন করার পরেও ওই যুবক তাঁর কথা শোনেননি। বাধ্য হয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন তৃণমূল নেত্রী। উত্তরপাড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

সামনে মাসেই চলবে বন্দেভারত স্লিপার ট্রেন! কোন রুটে? জানুন দিনক্ষণ…

অভিযোগ তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে

সূত্রের খবর, কয়েক মাস আগে অস্থায়ী কর্মী হিসেবে প্রাক্তন কাউন্সিলর কোন্নগর পুরসভার পরিবহন দফতরে তিনি যোগ দেন। কাজের সূত্রে পরিচয় হয় পুরসভার জলকল দফতরের কর্মী বিশ্বজিৎ মণ্ডল ওরফে বুচুর সঙ্গে। কাজের প্রয়োজনে তাঁর সঙ্গে বেশ কয়েকবার ফোনেও কথা হয়। তৃণমূল নেত্রীর অভিযোগ, কাজের প্রয়োজন ছাড়াও ওই তৃণমূল কর্মী ফোনে, হোয়াটসঅ্যাপে নানা রকম অপ্রীতিকর মেসেজ পাঠাতেন। তাঁকে কুপ্রস্তাবও দেন বলে অভিযোগ তৃণমূল নেত্রীর। সেই সমস্ত মেসেজের স্ক্রিন শর্ট দেখিয়ে কোন্নগর পুরসভার চেয়ারম্যান স্বপন দাসের কাছে অভিযোগ জানান ওই নেত্রী। এরপর চেয়ারম্যান অভিযুক্ত বিশ্বজিতকে দু’মাসের জন্য সাসপেন্ড করেন। সাসপেন্ডের মেয়াদ শেষ করে বিশ্বজিত মে মাসের প্রথমে আবার কাজে যোগ দেন।

তৃণমূল নেত্রীর অভিযোগ কাজে যোগ দেওয়ার পর থেকেই তাঁকে নানাভাবে হুমকি দিতে থাকে বিশ্বজিত। এরপরই মঙ্গলবার ওই নেত্রী বিশ্বজিতের নামে উত্তরপাড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিক। আমার দলের কর্মী বলে তাঁকে ছাড় দেওয়ার কোনও প্রশ্ন নেই বলে জানান কোন্নগর পুরসভার চেয়ারম্যান স্বপন দাস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর