tathagata-roy-on-anand-bose-controvercy

ব্যুরো নিউজ, ৩ মে : রাজ্যপালের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ, ‘রাজ্যপালের বিরুদ্ধে কোনও ফৌজদারি মামলা করা যায় না’। কারন জানালেন মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়। ঠিক কী বললেন তিনি?

রাজভবন থেকে মোদী বেরনোর পর পরেই রাজ্য ছাড়লেন বোস! রাজ্যপালকে নিয়ে বিতর্কের মাঝেই বড় সিদ্ধান্ত

গতকালই রাজ্যপালের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ ওঠে। রাজভবনের এক মহিলা অস্থায়ী কর্মী এই অভিযোগ তোলেন। ঘটনায় হেয়ার স্ট্রিট থানায় দায়ের করা হয় অভিযোগ। আর তা নিয়েই তুঙ্গে ওঠে রাজ্য- রাজনীতি। রাজ্যপালের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ তুলে সরব হন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। আর তার বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপও নেওয়া হয়। রাজভবনে রাজ্যের অর্থ প্রতিমন্ত্রীর প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়। জানানো হয়েছে, কোনও অনুষ্ঠানে রাজভবনের তরফে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যকে আমন্ত্রণ জানানো হবে না।

এদিকে রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলায় তুঙ্গে উঠেছে রাজ্য- রাজনীতি। আর তা নিয়ে সরব হন মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়। তিনি রাজ্যপাল বোসের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ প্রসঙ্গে বলেন, রাজ্যপালের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ বিশ্বাসযোগ্য নয়। এই অভিযোগ অবশ্যই প্রমান করতে হবে। তা না হলে অভিযোগকারি আইনি সমস্যায় পড়বেন। একই সঙে তিনি বলেন, রাজ্যপালের বিরুদ্ধে কোনও ফৌজদারি মামলা করা যায় না। এমনকি রাষ্ট্রপতির বিরুদ্ধেও তা প্রযোজ্য। রাজ্যপালের বিরুদ্ধে  দেওয়ানি মামলা করতে হলে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়।

একই সঙে তিনি অভিযোগকারি ওই মহিলার বিরুদ্ধে বলেন, এবার ওই মহিলাকে তার আনা সেই অভিযোগ প্রমান করতে হবে। এবং ওই মহিলার বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ২১১ সেকশন অনুযায়ী মামলা রুজু করার কোথাও বলেন। একই সঙে তথাগত রায় বলেন, নিজের ইজ্জত খোয়ানোর কথা বলা কোনও মহিলার পক্ষেই কঠিন। কিন্তু টাকার বিনিময়ে অনেক কিছুই হয়। আর তার এই বক্তব্যে যথেষ্ট ইঙ্গিতপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

তথাগত রায় একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ। তিনি ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ত্রিপুরার গভর্নর ছিলেন। এবং ২০১৮-এর আগস্ট থেকে ২০২০-এর আগস্টে তার মেয়াদ শেষ হওয়া পর্যন্ত মেঘালয়ের গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর