Purba Burdwan arms issue

ব্যুরো নিউজ, ৮ জুলাই: রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিরোধী শিবির। প্রসঙ্গত, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীও একাধিকবার রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। দিনকয়েক আগেই তিনি দাবি করেন, রাজ্যের হাত থেকে পুলিশের দায়িত্ব কেড়ে নেওয়া হোক। পাশাপাশি রাজ্যে ৩৫৫ ধারা জারির দাবি জানান তিনি। এছাড়াও কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্রও এই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন।

সন্দেশখালি মামলায় শীর্ষ আদালতে ধাক্কা রাজ্য সরকারের

আর এর মাঝেই বর্ধমানের আদালত চত্বরে ‘পিস্তলকাণ্ড’ আরও একবার রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে।

গত শনিবার বর্ধমান আদালত চত্বরে আগ্নেয়াস্ত্র-সহ এক যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। বেশ হাসি মুখেই দেখা যায় শেখ রজ্জাক নামে ওই যুবককে। আর এই ঘটনায় আরও একবার প্রশ্নের মুখে রাজ্য সরকার। আদালতচত্বরেও যদি নির্ভয়ে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঘুরে বেড়ায় দুষ্কৃতীরা তবে, গোটা রাজ্যের কি পরিস্থিতি? সেই নিয়েই প্রশ্নের মুখে রাজ্য-সহ পুলিশ প্রশাসন।

BJP Helpline

ঘটনায় রাজ্য ও পুলিশ প্রশাসনকে কাঠগড়ায় দারকরিয়েছে বিরোধীরা। “পুলিশ বলে আসলে কিছু নেই। “কোথাও কিছু না হলে মানুষ আদালতের আশ্রয় নেয়। সেই আদালত চত্বরেও দুষ্কৃতীর দাপাদাপি?” সেই প্রশ্নই তোলেন সুজন চক্রবর্তী। এছাড়াও পদ্ম শিবির দাবি করে, এ রাজ্যে আইনের শাসন বলে কিছু নেই। রাজ্যের শাসকদলের মদতেই এসব ঘটছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর