Hair Treatment

শর্মিলা চন্দ্র, ১৩ মে, : ঘন কালো চুল প্রায় সব মেয়েরই পছন্দ। তবে বর্তমানে অনেকেরই বয়সের আগে চুলে পাক ধরছে। সে ছেলে হোক কিংবা মেয়ে। একটা সময়ের পর চুল পাকবে সেটা স্বাভাবিক। কিন্তু বয়সের আগে চুলে পাক ধরলে স্বাভাবিকভাবেই সেটা চিন্তার বিষয়। ফলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে অনেকেই কলপের দিকে ঝোঁকেন। আবার অনেকে চুলে কালার করেন।

চুলের যত্নে পেঁয়াজ না রসুন কোনটা বেশি উপকারী?

সাদা চুল কালো করার ঘরোয়া পদ্ধতি

তবে বয়সের আগে চুল পাকার কিন্তু নির্দিষ্ট কিছু কারণ থাকে। সেগুলিকে আগে চিহ্নিত করতে হবে। আমাদের চুলের রং কিন্তু নির্ভর করে ফলিকেলের মেলানিনের উপর। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে চুলের ফলিকেলসে মেলানিন তৈরির ক্ষমতা কমে আসে, তাই আস্তে আস্তে চুল সাদা কিংবা ধূসর হতে শুরু করে। এছাড়াও বয়সের আগে চুল পাকারও বেশ কিছু কারণ রয়েছে।

যেমন- বংশগতির প্রভাবের কারণে অনেকের চুল বয়সের আগে সাদা হয়ে যায়। আবার চিন্তার কারণেও চুল পাকতে পারে। ভিটামিন বি ১২-এর অভাব, থাইরয়েডের সমস্যা, অতিরিক্ত স্মোকিং ইত্যাদি কারণেও চুলে পাক ধরতে পারে।

তবে চুল যে কারণেই সাদা হোক না কেন, আমাদের চেষ্টা করতে হবে সেই সাদা চুল কীভাবে আবার কালো করা যায়। এরজন্য কয়েকটি সহজ ঘরোয়া পদ্ধতি আপনি ব্যবহার করতে পারেন। চলুন দেখা নেওয়া যাক কী ধরনের ঘরোয়া পদ্ধতিতে সাদা চুল কালো করা যায়।
আমলকী ও মেথি

আমলকীতে প্রচুর পরিমাণের ভিটামিন সি রয়েছে। আর মেথিতে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে পুষ্টি। মেথি গুঁড়ো এবং ভিটামিন-সি একসঙ্গে মিশে চুল পাকা রোধ করে। এছাড়া এই তেলটি আপনার চুলের গোড়া মজবুত করতে সাহায্য করবে এবং চুলকে স্বাস্থ্যবান করতেও সাহায্য করবে।

একটি পাত্রে তেল গরম করুন। তেল ভালোভাবে গরম হলে তাতে আমলকী দিয়ে নাড়ুন। কিছুক্ষণ পর এতে মেথি গুঁড়ো দিয়ে দিন। সবগুলো উপাদান ভালোভাবে মিশে গেলে নামিয়ে ফেলুন। এবার একটি বোতল বা জারে তেলটি সংরক্ষণ করুন এবং ঠাণ্ডা হলে চুলে ব্যবহার করুন। চেষ্টা করবেন, সারারাত প্যাকটি মাথায় রাখতে। সকালে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

আলুর খোসা
এছাড়া আলুর খোসাও কিন্তু সাদা চুল কালো করতে বেশ উপকারী। ৫-৬টি আলুর খোসা নিন। সঙ্গে দুকাপ জল নিন।

একটি পাত্রে দুকাপ জল নিয়ে গরম করতে দিন। এরপর আলুর খোসাগুলো দিয়ে দিন। এবার জল যতক্ষণ না ফুটছে ততক্ষণ অপেক্ষা করুন। জল ভালো করে ফুটে গেলে নামিয়ে নিন। এরপর সেটি রেখে দিন। শ্যাম্পু করার পর আলুর খোসার জল দিয়ে চুলটা একবার ধুয়ে নিন। তবে এই জল দেওয়ার পর কিন্তু আর জল দেওয়া যাবে না। এটি সপ্তাহে দুবার ব্যবহার করুন।

নারকেল তেল, লেবুর রস
নারকেল তেল চুলের ময়েশ্চার ধরে রাখে। চুলের গ্রোথ বৃদ্ধি করে এবং চুলকে তার দরকারি পুষ্টি সরবরাহ করে। আর লেবুতে আছে ভিটামিন-সি। এই প্যাকটি নিয়মিত ব্যবহার করলে চুল পাকা কমে যাবে।
নারকেল তেলের সঙ্গে তিন-চার চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি মাথার তালুসহ সম্পূর্ণ চুলে ব্যবহার করুন। এটি চুলে এক বা দুঘণ্টা রাখুন। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। এটি সপ্তাহে একবার ব্যবহার করুন।

কারিপাতা
শুধু রান্নাতেই নয়, চুলের যত্নে কারিপাতার গুণ অপরিসীম। এতে ফলিক অ্যাসিড, বেটা-ক্যারোটিন, প্রোটিন, আয়রন সহ আরও অনেক ভিটামিন রয়েছে। যা চুলকে সাদা হওয়া থেকে দূরে রাখে এবং চুল কালো করতে সাহায্য করে। নারকেল তেলের সঙ্গে মিশিয়ে এটি ব্যবহার করতে পারেন।

এক টেবিল চামচ নারকেল তেলের মধ্যে একমুঠো কারিপাতা দিয়ে জ্বাল দিন। জ্বাল হয়ে এলে নামিয়ে ফেলুন। ঠান্ডা হয়ে গেলে এই তেলটি চুলে ম্যাসেজ করুন। ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে এক থেকে দু’বার ব্যবহার করুন।

BJP Helpline

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর