tmc inner clash arjun singh

ব্যুরো নিউজ, ৬ মার্চ: বিধায়ক সোমনাথ শ্যামের সঙ্গে ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে এসেছে অনেক আগেই। একে অপরের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে ‘ঠোঁটকাটা’ মন্তব্যও করতে শোনা যায়। আর তা নিয়েও কম জল ঘোলা হয়নি। যখন দলের একের পর এক যোদ্ধা দল ছাড়ছে, পদ ছাড়ছে সেই অবহেই আচমকাই নবান্নে হাজির ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং। মঙ্গলবার বিকেল ৪টে নাগাদ হঠাৎ নবান্নে আসেন অর্জুন সিং। জানা যায়, প্রায় ১ ঘণ্টা তিনি নবান্নে ছিলেন। এমনকি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক হয় তাঁর। সূত্র মারফৎ এও জানা গিয়েছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আসন্ন লোকসভা নির্বাচন ও দলীয় কোন্দল নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

অর্জুনের দিন শেষ!

আচমকা নবান্নে অর্জুন সিং | দলনেত্রীর সঙ্গে কী আলোচনা? 

এদিকে অর্জুন সিংয়ের বিরুদ্ধে ‘সৈন্য’ সাজিয়ে রেখেছে দলেরই সোমনাথ শ্যাম। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে অর্জুন সিং যাতে প্রার্থী না হতে পারে সেই ব্যবস্থাও করেছেন তিনি। জানা গিয়েছে এই বিষয়ে তিনি দলনেত্রীকে চিঠিও লিখেছেন বলে সূত্রের খবর। এই আবহেই আচমকা অর্জুন সিংয়ের নবান্নে আগমনকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে রাজনৈতিক মহল। কিন্তু এখানেই শেষ নয়। গতকাল আচমকা অর্জুন সিং নবান্নে হাজির হওয়ায় সেই বিষয়ে তোপ দেগেছেন বীজপুরের বিধায়ক সুবোধ অধিকারী।

Advertisement of Hill 2 Ocean

সুবোধ অধিকারী নাম না করেই অর্জুন সিংকে কটাক্ষ করেন। এমনকি তাকে গুন্ডা-অপরাধী বলে তোপ দাগেন তিনি। তিনি বলেন, তৃণমূল এতটাও দেউলিয়া হয়ে যায়নি যে গুন্ডা-অপরাধীদের দলের প্রার্থী করতে হবে। নিজের আখের গোছাতে দলে এসেছিলেন।

গত বছর বিজেপির টিকিটে লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে ভোট লড়েন অর্জুন সিং। জয়ী হয়ে ব্যারাকপুরের সাংসদও হন তিনি। কিন্তু এরপরেই বিজেপি ছেড়ে ফের তৃণমূলে ফিরে আসেন তিনি। সেই বিষয়কে সামনে এনেই অর্জুন সিংকে তোপ দেগে সুবোধ অধিকারী বলেন, নিজের আখের গোছাতে দলে এসেছিলেন।

দলের মধ্যে চলছে তীব্র অন্তঃ দ্বন্দ্ব। সেই দ্বন্দ্ব যেনও কমারী নাম নিচ্ছে না। দলনেত্রী সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন সব মনোমালিন্য মিটিয়ে নিতে। সেই জন্য কোর কমিটিও গঠন করার করহা বলেন তিনি। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি। এদিকে একে একে ফুঁসে উঠছে দলের নেতৃত্বরাই। এমনকি ক্ষোভ নিয়ে দল- পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে বেড়িয়েও আসছেন অনেকে। সকলেরই প্রায় একই অভিযোগ। কারোর না কারোর সঙ্গে মনোমালিন্য, তার থেকে কলহ। আর এই অভিযোগ ক্ষোভ নিয়েই পদ ছেড়েছেন কুনাল ঘোষ, এমনকি দল ছেড়েছেন তৃণমূলের প্রবীণ যোদ্ধা তাপস রায়ও।

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর