Suvendu Adhikary

ব্যুরো নিউজ, ৫ মে: নির্বাচনের মাঝেই রাজ্যে চুপিসারে বিদ্যুতের মাশুল বৃদ্ধি করা হয়েছে, এই অভিযোগে এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে নিশানা করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর অভিযোগ, বিভিন্ন জায়গায় গ্রাহকদের জন্য বিভিন্ন মাশুল নির্ধারণ করা হচ্ছে। মমতা সরকার তথ্য গোপন করে জনসাধারণকে প্রকার বোকা বানাচ্ছে বলেও দাবি করেন শুভেন্দু অধিকারী।

বায়ুসেনার কনভয়ে জঙ্গি হামলা! ফিরে এল পুলওয়ামার স্মৃতি! 

গ্রাহকদের পকেট ফাঁকা করতে মাশুল বৃদ্ধি

এই প্রসঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুভেন্দু অধিকারী একটি পোস্ট করে লিখেন, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থা গ্রাহকদের পকেট ফাঁকা করতে চুপচাপ মাশুল তালিকা পুনর্গঠন করেছে। সুচতুরভাবে ইউনিটের দাম না বাড়ালেও স্ল্যাব এমন ভাবে বদল করা হয়েছে যাতে গ্রাহকদের আরও বেশি খরচ হবে।

অন্যদিকে শুভেন্দু অধিকারীর এই অভিযোগকে সম্পূর্ণ খারিজ করে দিয়েছে, বিদ্যুৎ বণ্টন নিগম। তাদের দাবি এরকম কোন সিদ্ধান্ত তাদের সংস্থা নেয়নি। যদিও সম্প্রতি প্রকাশিত নির্বাচনী বন্ডের দিকে খেয়াল করলে দেখা যাবে CESCর মালিক আর পি গোয়েঙ্কা গোষ্ঠী প্রায় ৪০০ কোটি টাকা দিয়েছে তৃণমূলকে। অন্যান্য দেশের তুলনায় এ রাজ্যে বিদ্যুতের দাম সব থেকে বেশি। আর এখানেই বিজেপির দাবি, বিদ্যুতের মাশুল বাড়িয়ে অতিরিক্ত মুনাফা সিইএসসি সেই টাকার তৃণমূলকে দিয়েছে। নির্বাচনের মাঝে শাসক দলের চাপ বাড়াতে বিদ্যুতের মাশুল বৃদ্ধিকেও হাতিয়ার করছে বিজেপি, মত ওয়াকিবহল মহলের।

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর