বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

Arvind Kejriwal case

কেজরিওয়াল -র নির্বাচনী প্রচার নিয়ে কটাক্ষ অমিত শাহর

ব্যুরো নিউজ, ১১ মে  : আবগারি দুর্নীতি মামলায় স্বস্তি মিলেছে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের। শুক্রবারই তাঁকে অন্তর্বতীকা জামিন দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি লোকসভা নির্বাচনে আপ প্রধানের কোনও বাধা নেই বলেই জানিয়েছে শীর্ষ আদালত। অন্যদিকে এদিন জেল থেকে বেড়িয়েই বিজেপির বিরুদ্ধে তাঁর লড়াই আরও শক্তিশালী হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন কেজরিওয়াল। অন্যদিকে জামিন পাওয়া ও ভোটের প্রচার প্রসঙ্গে কেজরিওয়ালকে কটাক্ষ করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ‘মানুষরা শুধু আবগারি দুর্নীতির কথাই মনে করবেন’ শুক্রবার আসানসোল, রামপুরহাট, মাজদিয়ায় বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে প্রচারে এসেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এদিন সন্ধ্যায় কেজরিওয়াল যখন জেল থেকে ছাড়া পেয়ে লোকসভা নির্বাচনে যখন বিজেপিকে হারানোর হুঁশিয়ারি দিচ্ছেন তখনই তাঁর জামিন পাওয়া নিয়ে কটাক্ষ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বলেন, ‘এটা সাময়িক সময়ের জন্য জামিন। ওনাকে জুনের এক তারিখের পর আত্মসমর্পণ করতে হবে। উনি নির্বাচনের প্রচার করতে পারবেন, কিন্তু যেখানেই তিনি প্রচার করতে যাবেন সেখানকার মানুষরা শুধু আবগারি দুর্নীতির কথাই মনে করবেন।’ গোটা আম আদমি পার্টি আবগারি দুর্নীতিতে যুক্ত! অন্যদিকে সন্দেশখালিতে ধর্ষণের ঘটনা বিজেপির সাজানো বলে বারবার অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। এই প্রসঙ্গেও অমিত শাহ বলেন, ‘তৃণমূলের একটা ধরন আছে। প্রথমে তারা একটা অপরাধ করে তারপর সেটা সবার সামনে ভুল প্রমাণ করার জন্য আরও অপরাধ করে।’ হাইকোর্ট এবং মহিলারা কি মিথ্যা কথা বলছে? সিবিআই যে তদন্ত করছে তা কি ভুল? প্রশ্ন তোলের অমিত শাহ। এদিন কেজরিওয়ালকে আক্রমণের পাশাপাশি তৃণমূলকেও এক হাত নেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

আরো পড়ুন »
Dilip Ghosh On BJP

শেষ দিনের প্রচারে কীর্তি আজাদকে ব্যাঙ্গ দিলীপ ঘোষের

ব্যুরো নিউজ, ১১ মে : নির্বাচনী প্রচারের শেষ বেলায় স্বমেজাজে দিলীপ ঘোষ। আগামী ১৩ মে বর্ধমান-দুর্গাপুর কেন্দ্রে লোকসভা নির্বাচন। তার আগে শনিবার শেষ দিনের প্রচারে তৃণমূলকে আক্রমণের পাশাপাশি প্রতিপক্ষ কীর্তি আজাদকেও কটাক্ষ করতে ছাড়লেন না বিজেপি প্রার্থী দিলীপ ঘোষ। ‘নো টেনশন, অনলি অ্যাটেনশন’ জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী দিলীপ মমতাকে ‘হেলিকপ্টার’ খোঁচা দিলীপের উল্লেখ্য, গত দুদিন পুলিশকে কটাক্ষ করে বিতর্কে জড়িয়েছেন দিলীপ ঘোষ। দুর্গাপুরে দিলীপ ঘোষের রোড শো-এ পুলিশ অনুমতি না দেওয়াকে কেন্দ্র করে শুরু হয় বিতর্ক। বুধবার আইসি-কে হুঁশিয়ারি দেওয়ার পাশাপাশি বৃহস্পতিবারও পুলিশকে কটাক্ষ করেছেন দিলীপ ঘোষ। শুক্রবারও একই মেজাজে দেখা গেল বিজেপি প্রার্থীকে। এদিন তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দেওয়ার পাশাপাশি প্রতিপক্ষ কীর্তি আজাদকে বহিরাগত বলেও কটাক্ষ করেছেন দিলীপ ঘোষ। এবার মেদিনীপুর থেকে ভোটে না দাঁড়ালেও বর্ধমান-দুর্গাপুর কেন্দ্র থেকেও জয়ের ব্যাপারে সমানভাবে আশাবাদী দিলীপ ঘোষ। ২০১৯-এ মেদিনীপুরে জয় পেয়েছিলেন। এবার তার কেন্দ্র বধর্মান-দুর্গাপুর। এই কেন্দ্রে ২০১৯-এ বিজেপি জয়ের মার্জিন ছিল কম। তবে জয়ের ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত দিলীপ ঘোষ। বলেন, ‘এখানকার মানুষজনের সঙ্গে তাঁর ‘আই কনট্যাক্ট’ হয়ে গিয়েছে। মানুষ জানে বিজেপিই জিতবে’। শুধু তাই নয় ভোটের মার্জিনও বাড়বে বলে নিশ্চিত বিজেপি প্রার্থী। বলেন, ৪ জুন তাঁকে দেখা যাবে চেনা-মুডেই। ‘শুধু কত ভোটে জিতব, সেটা গুনে নিন, নো টেনশন, অনলি অ্যাটেনশন’। পাশাপাশি তৃণমূল প্রার্থী কীর্তি আজাদকে একহাত নিলেন দিলীপ ঘোষ। এদিন প্রতিপক্ষকে ব্যাঙ্গও করেন দিলীপ ঘোষ। শুধু তৃণমূলই নয় এদিন বামেদেরও কটাক্ষ করেন দিলীপ ঘোষ। এদিন তিনি বামেদের কটাক্ষ করে বলেন, বামেদের স্ট্রিট কর্নার আছে বলে কোথাও কোথাও তার মিছিল করার অনুমতি পেতে সমস্যা হয়েছে। ‘চামচিকে দিয়ে হাতিকে আটকানোর চেষ্টা চলছে!’ বলেও বামেদের তীর্যক মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ।

আরো পড়ুন »
abhishek banerjee copter searching

আয়কর অফিসারদের নজরে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কপ্টার,কীসের সন্ধানে তল্লাশি?

ব্যুরো নিউজ, ১৪ এপ্রিল: লোকসভা নির্বাচন যত এগোচ্ছে, ততই রাজনৈতিক উত্তেজনার পারদ চড়ছে। এবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কপ্টারে আয়কর তল্লাশি অভিযোগ। উল্লেখ্য, সোমবার তমলুকে সভা রয়েছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তার আগে রবিবার বেহালা ফ্লাইং ক্লাবে হেলিকপ্টারের ট্রায়াল চলছিল। সেই সময় আচমকা আয়কর অফিসাররা তল্লাশি চালান বলে অভিযোগ। কীসের সন্ধানে অভিষেকের কপ্টারে তল্লাশি? ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির ইস্তেহারে ঢালাও প্রতিশ্রুতি মোদির তৃণমূলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে, তল্লাশির নাম করে ট্রায়াল রানে বাধা দেওয়া হয়েছে। অভিষেকের নিরাপত্তারক্ষীরা তল্লাশির কারণ জানতে চাইলে তাদের সঙ্গে আয়কর অফিসারদের বচসা বাধে বলে অভিযোগ। যদিও আয়কর অফিসাররা কিছু পাননি বলেই জানানো হয়েছে। অন্যদিকে এই ঘটনার পর ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের এক্স হ্যান্ডেলে পোস্ট করে লেখেন, ‘এনআইএ তাঁদের ডিজি এবং এসপি-কে অপসারণ করার পরিবর্তে কমিশন এবং বিজেপি আজ আমার হেলিকপ্টার এবং নিরাপত্তা কর্মীদের তল্লাশি করতে একটি টিম পাঠিয়েছিল। যদিও তল্লাশি চালানোর পরেও কিছু পাননি তাঁরা। জমিদাররা সর্বশক্তি প্রয়োগ করতে পারে কিন্তু বাংলার প্রতিরোধের শক্তি কখনই দুর্বল হবে না।’ তবে এদিনে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কপ্টারে আয়কর আধিকারিকদের তল্লাশি নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে।

আরো পড়ুন »
bjp manifesto

২০২৪ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির ইস্তেহারে ঢালাও প্রতিশ্রুতি মোদির

ব্যুরো নিউজ, ১৪ এপ্রিল: নববর্ষের দিন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইশতেহার প্রকাশ করল বিজেপি। ইস্তেহারের নাম দেওয়া হয়েছে সংকল্পপত্র। এদিন বি আর আম্বেদকরের জন্মদিনে বিজেপির সদর দফতর থেকে ইস্তেহার প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ‘মোদির গ্যারান্টি ২৪ ক্যারেট সোনার মতোই খাঁটি’ http://বেঙ্গালুরুর বিস্ফোরণের ঘটনায় বাংলা থেকে ধৃত দুই অভিযুক্তর কি হল? ইস্তেহারে যে বিষয়গুলি রয়েছে তা হল- ১) এক দেশ, এক নির্বাচনের বিষয়টি বাস্তবায়িত করা। অভিন্ন দেওয়ানি বিধি লাগু করা। ২) ইস্তেহারে বলা হয়েছে দুর্নীতিবাজদের রেয়াত করবে না সরকার। তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা করা হবে। ৩) যুবকদের কর্মসংস্থানের ওপর জোর দেওয়া হবে। ৪) আগামী পাঁচ বছরও বিনামূল্যে রেশন পরিষেবা মিলবে। গরিবদের পুষ্টিকর খাওয়ার দেওয়ার ব্যাপারে নজর দেওয়া হবে। ৫) ২০২৫ সালকে জনজাতীয় গৌরব বর্ষ হিসাবে পালন করা হবে। ২০২৫-এ বীরসা মুন্ডার ১৫০ তম জন্মজয়ন্তী। এই সময়টি রাষ্ট্রীয় স্তরে পালন করা হবে। ৬) ভারতকে যাতে গ্লোবাল নিউট্রিশন হাব বানানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। তার জন্য শ্রীঅন্নের উপরে জোর দেওয়া হবে। এতে ২ কোটিরও বেশি কৃষক উপকৃত হবেন। ফিশারি ও স্টোরেজের উন্নয়ন করা হবে। ৭) মহিলাদের সুরক্ষিত রাখতে সার্ভাইক্যাল ক্যানসার নিয়ে প্রচার চালানো হবে। মহিলা খেলোয়াড়দের জন্য বিশেষ প্রোগ্রামের ব্যবস্থা করা হবে। ৮) জনঔষধি সেন্টারে ওষুধের দামে ৮০ শতাংশ ছাড় পাওয়া যাবে । পাঁচ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনামূল্যে চিকিৎসা ব্যবস্থা চালু থাকবে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে। ৯) একাধিক বন্দে ভারত ট্রেন চালানোর প্রতিশ্রুতি। ১০) পেট্রোল আমদানি কমানোর প্রতিশ্রুতি। ১১) জাতীয় শিক্ষানীতি বাস্তবায়িত করার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। ১২) রূপান্তরিতদের আয়ুষ্মান ভারতের অন্তর্গত করা হবে ১৩) গ্রামীণ মহিলারা ড্রোন পাইলট হতে পারবেন। নমো ড্রোন দিদি যোজনায় আওতায় থাকবেন এই মহিলারা। ১৪) নারী সুরক্ষা বাস্তবায়নেরও প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। এদিন ইস্তেহার প্রকাশের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, ‘মোদির গ্যারান্টি ২৪ ক্যারেট সোনার মতোই খাঁটি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে আমরা দেশবাসীকে দেওয়া প্রতিটি প্রতিশ্রুতি পূরণ করেছি।’

আরো পড়ুন »
rahul file nomination

কেরলের ওয়ানাড কেন্দ্রে মনোনয়ন জমা দিলেন রাহুল গান্ধী, প্রতিপক্ষ জোট সঙ্গী!

ব্যুরো নিউজ, ৩ এপ্রিল : সামনেই লোকসভা নির্বাচন। সেই নির্বাচনকে সামনে রেখেই এবার কেরলের কেরলের ওয়ানাডে মনোনয়ন জমা দিলেন কংগ্রেস প্রার্থী রাহুল গান্ধী। বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে সঙ্গে নিয়ে এদিন মনোনয়ন জমা দেন কংগ্রেস প্রার্থী রাহুল গান্ধী । বাইরে তখন কংগ্রেস কর্মীদের উচ্ছ্বাস। যদিও মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগে বিশাল রোড শোয়ে অংশ নেন রাহুল। তাঁর রোড শোকে কেন্দ্র করে বিশাল জনসমাবেশ ছিল চোখে পড়ার মতো। ‘তিহাড় জেলে থেকেই শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটছে কেজরীওয়ালের’ দাবি আম আদমি পার্টির! ওয়ানাডে প্রতিপক্ষ জোট সঙ্গী সিপিআই চালসার চা বাগানে মমতা, কথা হলো মিড ডে মিল নিয়ে এদিনের রোড শো থেকে জনতার উদ্দেশ্যে একাধিক বার্তা দেন রাহুল গান্ধী। তিনি বলেন, ওয়েনাডের জনতা তাঁর কাছে কোনও ভোটদাতা নন, তাঁর কাছে ওয়েনাদের মানুষ তাঁর ছোট বোন প্রিয়াঙ্কার মতোই। উল্লেখ্য, ২০১৯ লোকসভা ভোটে, ওয়েনাড থেকে জিতেছিলেন রাহুল গান্ধী। যদিও আমেঠি কেন্দ্রে বিজেপির স্মৃতি ইরানির কাছে হেরে যান তিনি। ২০২৪ এ লোকসভা নির্বাচিনে ফের রাহুল আমেঠি থেকে লড়বেন, কিনা তা নিয়ে জল্পনা চলছে। যদি তিনি প্রার্থী হন তাহলে আরও একবার তাঁকে বিজেপি প্রার্থী স্মৃতি ইরানির বিরুদ্ধে ময়দানে নামতে হবে। ফলে আমেঠি কেন্দ্রটি রাহুক গান্ধীর কাছে বেশ গুরুত্বপূর্ণ তা বলার অপেক্ষা রাখে না। অন্যদিকে, ওয়ানাডে তাঁর প্রতিপক্ষ সিপিআই-এর অ্যানি রাজা এবং বিজেপির কে সুরেন্দ্রন।

আরো পড়ুন »
mamta banerjee at tea garden

চালসার চা বাগানে মমতা, কথা হলো মিড ডে মিল নিয়ে

ব্যুরো নিউজ, ৩ এপ্রিল : লোকসভা নির্বাচনের আগে বৃহস্পতিবার উত্তরবঙ্গে প্রথম সভা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তার আগে বুধবার উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় জনসংযোগ করতে দেখা গেল মুখ্যমন্ত্রীকে। ‘তিহাড় জেলে থেকেই শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটছে কেজরীওয়ালের’ দাবি আম আদমি পার্টির! চালসায় জনসংযোগ কর্মসূচি থেকে কেন্দ্রকে নিশানা এদিন তিনি চালসার একটি চা বাগানে যান। চা বাগানে যাওয়ার পথে গাড়ি থামিয়ে পড়ুয়াদের সঙ্গে কথাও বলেন। তারা ঠিকমতো মিড ডে মিল পাচ্ছে কিনা, সবরকম সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে কিনা সব কিছু জানতে চান তিনি। এরপর চা বাগানে গিয়ে সেখানকার চা শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেন। তাদের অভাব অভিযোগ শোনেন। লোকসভা নির্বাচনে চা শ্রমিকদের ভোট তৃণমূলের ভোটব্যাঙ্কের জন্য যে একটা বড় ফ্যাক্টর তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এদিন চা শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলার পাশপাশি চা শ্রমিকদের দুরাবস্থার জন্য যে কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানাও করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি অভিযোগ করেন কেন্দ্রের জন্যই প্রায় ১০ লক্ষ চা শ্রমিক বেকার হয়েছে। এদিন জনসংযোগ কর্মসূচিতে মুখ্যমন্ত্রী হঠাৎই একট চায়ের দোকানে ঢুকে পড়েন। নিজের হাতে চা তৈরি করে সকলকে চা পরিবেশনও করেন। উল্লেখ্য, মঙ্গলবারও চালসার কিছু জায়গায় জনসংযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। দুদিনই তিনি কেন্দ্রকে নিশানা করেন। বৃহস্পতিবার সভা থেকে তিনি কী বার্তা দেন সেদিকেই নজর থাকবে।

আরো পড়ুন »
abhishek in core committee

কোর কমিটির বৈঠক থেকে হুঁশিয়ারি অভিষেকের

ব্যুরো নিউজ, ৩ এপ্রিল : লোকসভা নির্বাচনের আগে দলী কর্মীদের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বুধবার বীরভূমে কোর কমিটির বৈঠক করেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড। সেখান থেকেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে স্পষ্ট বার্তা দেন অভিষেক। প্রসঙ্গত, অনুব্রত গড় হিসাবে পরিচিত বীরভূম। সেই অনুব্রতই দুর্নীতির অভিযোগে জেলবন্দি। সেই বীরভূমেই বারংবার গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে এসেছে। ‘অব কে বার— তিহাড়’, মহুয়ার নিশানায় বিজেপি নির্বাচনের আগে কী বার্তা দিলেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড বুধবার কোর কমিটির বৈঠক অভিষেক বার্তা দেন, ‘কোনওরকম গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব রেয়াত করা হবে না। কারও কোনও অভিযোগ থাকলে ভোটের পর শোনা হবে। এখন বুথে-বুথে যান। মানুষের সঙ্গে কথা বলুন। মানুষই সর্বশক্তিমান।’ পাশাপাশি জেলার মানুষরা যাতে তাদের অভিযোগ জানাতে পারেন তারজন্য জেলা অ্যাপ করা হবে বলেও জানান তিনি। যে যে পুরসভা বা পঞ্চায়েতে ভোটের লিড কম থাকবে, সেই এলাকার বুথ সভাপতি, জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ২১ জুলাইয়ের মধ্যে তা করা হবে বলে জানান তিনি। পরের নির্বাচনে তাঁকে আর টিকিট দেওয়া যাবে না বলেও হুঁশিয়ারি অভিষেকের। একই সঙ্গে তিনি জানান, ভোটের ফলের উপর দলীয় পদের ‘প্রোমোশন-ডিমোশন’ নির্ভর করছে। বিকাশ রায়চৌধুরি, আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, চন্দ্রনাথ সিনহা, সুদীপ্ত ঘোষ, অভিজিৎ সিংহ সহ এদিন কোর কমিটির বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি কাজল শেখও।

আরো পড়ুন »
mohua moitra threat bjp

‘অব কে বার— তিহাড়’, মহুয়ার নিশানায় বিজেপি

ব্যুরো নিউজ, ৩ এপ্রিল: আবারও খবরের শিরোনামে কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্র। এবার সরাসরি বিজেপিকে আক্রমণ করলেন মহুয়া। উল্লেখ্য, মঙ্গলবারই তাঁর বিরুদ্ধে আর্থিক তছরূপের মামলা দায়ের করেছে ইডি। আর এর পরেই বিজেপিকে নিশানা করে নিজের এক্স হ্যান্ডেলে মহুয়া লেখেন, ‘খুলে হ্যায় বিজেপি কে দ্বার/ আ যাও নহি তো অব কে বার— তিহাড়।’ অর্থাৎ বিজেপিতে যোগ না দিলে বিরোধী নেতানেত্রীদের ঠিকানা হবে তিহাড় জেল। এর সঙ্গে তিনি এও দাবি করেন, ২৫ জন বিরোধী নেত, যাঁদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ছিল, তাঁরা বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় ইতিমধ্যে ২৩ জনকে দুর্নীতির অভিযোগ থেকে মুক্ত করা হয়েছে। বৃ্হস্পতিবার কোচবিহারে প্রধানমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রীর হাইভোল্টেজ সভা কেন এমন বললেন কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থী? উল্লেখ্য, সংসদে টাকার বিরুদ্ধে প্রশ্ন করার মামলায় মহুয়ার বিরুদ্ধে তদন্ত করছে ইডি। বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেন সংক্রান্ত মামলাও রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। এর ওপর মঙ্গলবার তাঁর বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের মামলা দায়ের করল ইডি। সব মিলিয়ে নির্বাচনের আগে বেশ চাপের মুখে কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্র। অন্যদিকে, এই মুহূর্তে তিহাড় জেলে বন্দি দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এই পরিস্থিতি মঙ্গলবারই আপ নেতা অতিশী বিস্ফোরক দাবি করেছিলেন যে, বিজেপিতে যোগ না দিলে আফগারি দুর্নীতি মামলায় অরবিন্দ কেজরিওয়ালের পর এবার তাঁদের ঠিকানা হতে পারে তিহাড় জেল। নির্বাচনের আগে তিহাড় জেলে কার ঠিকানা হয় সেটাই এখন দেখার।

আরো পড়ুন »
mamta modi meeting

বৃ্হস্পতিবার কোচবিহারে প্রধানমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রীর হাইভোল্টেজ সভা

ব্যুরো নিউজ, ৩ এপ্রিল: বৃহস্পতিবার কোচবিহারে দুটি হাইভোল্টেজ সভা হতে চলেছে। বৃহস্পতিবার একদিকে কোচবিহারে সভা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  অন্যদিকে এদিনই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিকের গড়ে সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ইতিমধ্যে উত্তরবঙ্গে চলে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। ভোটের মুখে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা পেলেন ৪ বিজেপি নেতা!কারা পেলেন জেট ক্যাটাগরি? ইতিমধ্যে উত্তরবঙ্গে চলে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। উল্লেখ্য, ইতিমধ্যে আরামবাগ, কৃষ্ণনগর, বারাসাত, শিলিগুড়িতে সভা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এবার সভা করবেন কোচবিহারে। সম্প্রতি নিশীথ-উদয়ন গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘাতকে কেন্দ্র করে কোচবিহারের পরিস্থিতি উত্তপ্ত। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সেই নিশীথ প্রামাণিকের গড়েই সভা করবেন নরেন্দ্র মোদি। বিজেপি সূত্রের খবর, কোচবিহারের রাসমেলা ময়দানে সভা করবেন নরেন্দ্র মোদি। প্রসঙ্গত, এর আগের সভা থেকে বঙ্গ শিবিরকে ৪২ আসনের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। উল্লেখযোগ্য ভাবে লোকসভা নির্বাচনের জন্য এখনও ৪২ আসনের প্রার্থী দিতে পারেনি বিজেপি। এই পরিস্থিতিতে কোচবিহারে প্রধানমন্ত্রীর সভা বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। অন্যদিকে, প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর সভাকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আঁটোসাঁটো করা হয়েছে।

আরো পড়ুন »
crpf security 4 bjp leaders

ভোটের মুখে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা পেলেন ৪ বিজেপি নেতা!কারা পেলেন জেট ক্যাটাগরি?

ব্যুরো নিউজ, ৩ এপ্রিল, শর্মিলা চন্দ্র: লোকসভা নির্বাচনের আগে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাড়ানো হলো চার বিজেপি নেতার। ব্যারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংকে দেওয়া হল সর্বোচ্চ নিরাপত্তা। সূত্রের খবর, জেড ক্যাটাগরি নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে অর্জুন সিংকে। জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তার অধীনে পুলিশ অফিসা কমান্ডো-সহ মোট ২২ জন নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকেন। আদৌ কি বৃষ্টির মুখ দেখতে পাবে বঙ্গবাসী? কী বলে হাওয়া অফিস? ওয়াই প্লাস ক্যাটাগরির নিরাপত্তা ফিরে পেলেন অর্জুন সিং উল্লেখ্য, ২০১৯ এ বিজেপিতে থাকাকালীন ওয়াই প্লাস ক্যাটাগরি নিরাপত্তা পেয়েছিলেন অর্জুন সিং। ২০২১-এ পেয়েছিলেন জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তা। যদিও পরে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কারণে কেন্দ্রে তরফে তাঁর সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রত্যাহার করা হয়। লোকসভা নির্বাচনের আগে ফের গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়ায় তাঁর সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ফিরিয়ে দিল কেন্দ্র। অন্যদিকে, হাইকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি তথা তমলুক কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে ওয়াই প্লাস ক্যাটাগরি নিরাপত্তা। অর্জুন সিং, অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের পাশাপাশি এক্স ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে কোচবিহারের বিজেপি জেলা সাধারণ সম্পাদক অভিজিৎ বর্মন ও কোচবিহারের বিজেপির কার্যনিবাহী সদস্য তাপস দাসকে। ভোটের মুখে চার বিজেপি নেতার নিরাপত্তা বৃদ্ধি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আরো পড়ুন »

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

ঠিকানা