Trinamool brigade vs Shuvendu's 'event' at Sandeshkhali
ব্যুরো নিউজ, ১২ ফেব্রুয়ারি: সন্দেশখালিকাণ্ড নিয়ে উত্তাল রাজ্য-রাজনীতি। সরব বিরোধী দলগুলিও। আর তা নিয়ে তুঙ্গে শাসক-বিরোধী তর্জা। এরই মাঝে প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। 

subhendu in sandeshkhali

রবিবার নন্দীগ্রামে প্রতিবাদ মিছিল করেন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। সেখানেই রাজ্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন তিনি। পাশাপাশি সন্দেশখালির আন্দোলনকারীদের পাশে থাকার বার্তাও দেন। তিনি জানান সোমবার তিনি ৫০ জনকে সঙ্গে নিয়ে সন্দেশখালি যাবেন। আর সন্দেশখালি যেতে যদি রাজ্য পুলিশ তাঁকে বাধা দেয়, তাহলে যেখানে তাঁকে বাধা দেওয়া হবে সেখানেই অবস্থান বিক্ষোভে বসবেন বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শুভেন্দু। শুধু তাই নয়, শনিবারও সন্দেশখালিকাণ্ডের প্রতিবাদে তিনি রাজভবনে যান। যদিও রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা না হলেও, রাজ্যপাল বোসের প্রতিক্রিয়ার দাবি জানান তিনি।

সন্দেশখালি নিয়ে কড়া রাজ্যপাল! রাজ্য সরকারকে কী নির্দেশ?

তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখ এবং তার অনুগামীদের অত্যাচারের প্রতিবাদে উত্তাল সন্দেশখালি। ভাঙচুর চালানো হয়েছে  শাহজাহানের অনুগামী শিবু-উত্তমের বাড়ি-অফিসেও। এমনকি প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছে মহিলারাও। ঘটনায় সরগরম সন্দেশখালি এলাকা। এই পরিস্থিতিতে নির্দিষ্ট কালের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। আর এই অবস্থাতেই সন্দেশখালি যাওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন তিনি। এমনকি তাঁকে যদি বাধা দেওয়া হয় সেক্ষত্রে সেখানে তাঁকে বাধা দেওয়া হবে সেখানেই অবস্থান- বিক্ষোভে বসবেন বলে কড়া বার্তা দিয়েছেন  বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি সাফ জানিয়েছেন, রাজ্য পুলিশ প্রশাসনের মদতেই বাংলার মহিলাদের উপর এই ধরনের বর্বরোচিত ঘটনা ঘটছে। এর প্রতিবাদের পাশাপাশি সন্দেশখালির দোষীদের চিন্নিত করে কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি। ফলে স্পষ্ট বোঝাই যাচ্ছে তাঁর জায়গায় অনড় তিনি। ফলে আজ শুভেন্দুর সন্দেশখালিতে আসা নিয়ে ফের উত্তপ্ত হতে পারে সন্দেশখালি। সেই আঁচ পাচ্ছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। ইভিএম নিউজ

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর