ব্যুরো নিউজ, ২১ সেপ্টেম্বর: জন্ম-মৃত্যুর রেজিষ্টার সংশোধনে গাফিলতি

কেউ পাঁচ দিন আবার কেউ পাঁচ বছর ধরে হন্যে হয়ে ঘুরছেন। তবুও হচ্ছে না জন্ম সার্টিফিকেটের সমস্যার সমাধান। পঞ্চায়েত কর্মচারীদের বিরুদ্ধে হয়রানি ও অনিয়মের অভিযোগ তুলে সরব হলেন এলাকার ভুক্তভোগী অভিভাবকেরা।

দিনের ব্যস্ত সময়ে পুলিশ সুপারের অফিস সংলগ্ন সরকারি অফিসে তাজা বোমা

অভিযোগ উঠেছে চাঁচল ১ নং ব্লকের গ্রাম পঞ্চায়েতের জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন রেজিষ্টার কর্মচারীদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, পঞ্চায়েতে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দফতরের কর্মচারীরা নিয়মিত দফতর খোলেন না। মাসের বেশিরভাগ সময় দফতরে তালা লাগানো থাকে। নতুন জন্ম সার্টিফিকেট সংশোধনের জন্যও বছরের পর বছর দফতরে হন্য হয়ে ঘুরতে হয়। তবুও মেলেনা সার্টিফিকেট। জন্ম সার্টিফিকেট না থাকার কারণে আধার ও রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারছেন না অভিভাবকরা। দফতরের কর্মচারীরা বিভিন্ন সমস্যা দেখিয়ে বছরের পর বছর ধরে অভিভাবকদের ঘোরাচ্ছেন। যদিও পঞ্চায়েত কর্মচারীরা তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাঁরা বলেছেন, তাদের বিরুদ্ধে সরাসরি মিথ্যা অভিযোগ তুলছেন অভিভাবকেরা।

স্কুল ছাত্রীদের সহায়তায় কেন্দ্রীয় প্রকল্প

নুরগঞ্জ এলাকার মানেজা খাতুন নামে এক অভিভাবিকার অভিযোগ, “জন্ম সার্টিফিকেটে ছেলের নাম সংশোধনের জন্য পাঁচ বছর ধরে ঘুরছি। তবুও সংশোধন করে দিচ্ছেন না। তিনমাস পরে আসতে বলেছিলেন কিন্তু আমি পাঁচ মাস পরে এসেছি। তবুও ঘুরে যেতে হচ্ছে। ছেলের বয়স ১০ বছর হয়ে গেছে। আধার কার্ড ও রেশন কার্ড তৈরি করতে পারছি না। এমনকি ছেলেকে স্কুলে ভর্তি করাতেও পারছি না”।

জন্ম সার্টিফিকেট দফতরের এক কর্মচারী মহম্মদ মুস্তাকিম জানান, কোনও অভিভাবক জন্ম সার্টিফিকেটের জন্য পাঁচ বছর ধরে ঘোরেনি। অনলাইনে সংশোধন পোর্টালটি বন্ধ রয়েছে তাই হয়তো কয়েকদিন ঘুরতে হয়েছে। চালু হয়ে গেলে কাউকে আর ঘুরতে হবে না। ইভিএম নিউজ

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর