বেশ

ব্যুরো নিউজ, ১ ডিসেম্বর: SIM Card সংক্রান্ত বেশ কিছু নিয়মে বদল! না মানলে ১০ লক্ষ টাকা জরিমানা

চলতি বছরেই SIM Card সংক্রান্ত বেশ কিছু নিয়ম বদলে যাচ্ছে। সিম কার্ড যাঁরা কিনবেন এবং যাঁরা বিক্রি করবেন দুই পক্ষের জন্যই একগুচ্ছ নিয়ম কার্যকর হচ্ছে 1 ডিসেম্বর থেকে।

UPI তে ২০০০ টাকার বেশি লেনদেনে লাগাম

প্রতারণা এড়াতে কঠোর পদক্ষেপ কেন্দ্র সরকারের। মূলত, সেই দিকটা মাথায় রেখেই ডিপার্টমেন্ট অফ টেলিকমিউনিকেশনস সিম কার্ডের জন্য নতুন নিয়ম কার্যকর করছে। এবার থেকে নতুন সিম কিনতে ক্রেতাদের KYC আপডেট করতে হবে। শুধু তাই নয়। ডিলারদেরও সিম কার্ড ভেরিফাই করাতে হবে। তাদের প্রমাণ করতে হবে যে, গ্রাহককে দেওয়া নতুন সিমটি তাঁকে ব্যতীত আর কাউকে ইস্যু করা হয়নি।

আর্থিক প্রতারণা এড়াতেই এই পদক্ষেপটি নেওয়া হয়েছে। সিম কার্ড নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রত্যেক কাস্টমারকে ডিজিটাল KYC আপডেট করতে হবে। ক্রেতা যদি নতুন সিম কার্ড কেনেন বা চালু নম্বরের জন্য একটি ফ্রেশ সিমের আবেদন করেন, তাহলে তাঁকে তাঁর ঠিকানা অর্থাৎ ডেমোগ্রাফিক তথ্য দিতে হবে। প্রিন্ট করা আধার কার্ডের QR কোড স্ক্যান করে যাবতীয় বিবরণ যাচাই করা হবে।

সিম বদলানোর ক্ষেত্রেও KYC প্রক্রিয়াটি করতে হবে। সেক্ষেত্রে ইনকামিং ও আউটগোয়িং SMS পরিষেবা পেতে 24 ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে। জানানো হয়েছে, পূর্ববর্তী ব্যবহারকারীর ব্যবহার করা সিম কার্ডের সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার 90 দিন পরেই ওই নম্বরটি অন্য একজন কাস্টমারকে নতুন হিসেবে দেওয়া হবে।

ডিজিটাল প্রতারণা এড়াতে সরকারের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, একসঙ্গে একজনের জন্য বহু সিম কার্ড ইস্যু করা যাবে না।

ডিলারদের ক্ষেত্রে নিয়ম:

নতুন নিয়মে সমস্ত টেলিকম অপারেটরদের, তাদের ফ্রাঞ্চাইজি, PoS এজেন্ট এবং ডিস্ট্রিবিউটরদের রেজিস্টার করতে হবে। তাঁদের ভেরিফিকেশন পদ্ধতির মধ্যে দিয়েও যেতে হবে। আর এই নিয়ম না মানলেই ₹10 লাখ টাকা জরিমানা করা হবে। এই পদক্ষেপের মধ্যে দিয়ে দুর্বৃত্ত PoS এজেন্টদের নির্মূল করতে চাইছে সরকার, যারা একাধিক প্রতারণামূলক কাজকর্মে জড়িত থাকে। সরকার আরও নির্দেশ দিয়েছে যে, কোনও বিদ্যমান PoS এজেন্টরা অবৈধ কার্যকলাপে জড়িত থাকলে তাদের ব্ল্যাক লিস্ট করা হবে। সংবাদ মাধ্যমের সাহায্য নিয়ে লেখা। ইভিএম নিউজ


		

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর