বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

মুহরাত ট্রেডিং

মুহরাত ট্রেডিংয়ে বিনিয়োগের আগে অবশ্যই জেনে নিন এই টিপসগুলো

ব্যুরো নিউজ, ৭ নভেম্বর: মুহরাত ট্রেডিংয়ে বিনিয়োগের আগে অবশ্যই জেনে নিন এই টিপসগুলো আগামী ১২ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬ টায় মাত্র ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের জন্য বিশেষ শেয়ার ট্রেডিংয়ের ব্যবস্থা থাকছে। কালিপুজো আর ধন্তেরাস এই দুই শুভ উৎসবে শেয়ার ট্রেডিংয়ের দিকেই তাকিয়ে আছে বিনিয়োগকারীরা। নানা ধরনের ব্যবসায়ী, শেয়ার কারবারী এমনকি মধ্য ও উচ্চ আয়ের চাকুরীজীবীরাও মুখীয়ে থাকেন এই বিশেষ শেয়ার ট্রেডিংয়ের জন্য। মুহুরাত ট্রেডিংয়ে সম্বত ২০৮০-র বিশেষত্ব! আশার আলো দেখছেন বিনিয়োগকারীরা বাস্তবে শেয়ার বাজারে ওঠা-পড়া থাকলেও, শেয়ারে বিনিয়োগ করে থাকেন বিনিয়োগকারীরা। তাদের এই বিশ্বাস যে, এই বিশেষ মুহরাত বা সময়ে শেয়ারে টাকা বিনিয়োগ করলে তা লাভজনক হবে। এমনকি ঘুরে যেতে পারে ভাগ্যের চাকা। তবে শেয়ারে টাকা বিনিয়োগ করার আগে আবশ্যই ভাবনা-চিন্তা করে নেবেন। আবশ্যই হিসাব কষে নেবেন কোন IPO তে বিনিয়োগ করলে আপনি লাভবান হতে পারেন। এছাড়াও মুহরাত ট্রেডিংয়ে কীভাবে সফলভাবে বিনিয়োগ করবেন সেই বিষয়ে রইল কিছু টিপস: গবেষণা করা প্রয়োজন: মুহরাত ট্রেডিংয়ে অংশগ্রহণ করার আগে, আপনি যে স্টক বা সেক্টরে বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা করছেন সেগুলি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে গবেষণা করুন৷ শক্তিশালী মৌলিক এবং বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে এমন কোম্পানিগুলির সন্ধান করুন৷ বাস্তবসম্মত লক্ষ্য সেট করুন: মুহরাত ট্রেডিং সেশনের জন্য বাস্তবসম্মত বিনিয়োগ লক্ষ্য ও প্রত্যাশা সেট করুন। অল্প সময়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য লাভের আশা করবেন না। মনে রাখবেন, মুহরাত ট্রেডিং একটি ট্রেডিং সুযোগের চেয়ে একটি প্রতীকী ঘটনা। আপনার পোর্টফোলিওকে বৈচিত্র্যময় করুন: আপনার সব ডিম এক ঝুড়িতে রাখবেন না। বিভিন্ন সেক্টর বা স্টকে বিনিয়োগ করে আপনার পোর্টফোলিওকে বৈচিত্র্যময় করুন। এটি ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে এবং স্থিতিশীল আয় উপার্জনের সম্ভাবনা বাড়ায়। শেয়ার বাজারের দিকে নজর রাখুন: যদিও মুহরাত ট্রেডিং একটি সংক্ষিপ্ত সেশন, তবে বাজারের খবর এবং প্রবণতাগুলির সাথে আপডেট থাকা গুরুত্বপূর্ণ। আপনার বিনিয়োগের উপর প্রভাব ফেলতে পারে এমন কোনো উল্লেখযোগ্য উন্নয়নের উপর নজর রাখুন। আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করুন: মুহুর্তের লেনদেন আপনার আবেগের সাথে জড়িয়ে যেতে পারে। বিশেষ করে উৎসবের চেতনার কারণে। তবে, আবেগের চেয়ে যুক্তি ও বিশ্লেষণের ভিত্তিতে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। স্বল্পমেয়াদী বাজারের গতিবিধির উপর ভিত্তি করে আবেগপ্রবণ বাণিজ্য করা এড়িয়ে চলুন। তবে মনে রাখবেন যে এই সেশনের সময় বাজারের প্রবণতা দ্রুত বিপরীতমুখী হতে পারে। তাই সতর্কতা অবলম্বন করা অবশ্য প্রয়োজন। ইভিএম নিউজ

আরো পড়ুন »
মুহুরাত ট্রেডিং

মুহুরাত ট্রেডিংয়ে সম্বত ২০৮০-র বিশেষত্ব! আশার আলো দেখছেন বিনিয়োগকারীরা

ব্যুরো নিউজ, ৭ নভেম্বর: মুহুরাত ট্রেডিংয়ে সম্বত ২০৮০-র বিশেষত্ব! আশার আলো দেখছেন বিনিয়োগকারীরা প্রতিবছর দীপাবলি উদযাপনের অংশ হিসাবে, শেয়ার বাজার একটি বিশেষ ট্রেডিং সেশনের জন্য খোলা হয় যা মুহরাত ট্রেডিং নামে পরিচিত। এই বছর মুহরাত ট্রেডিংয়ের সময় সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত। দীপাবলিতে এই বাজার শুধুমাত্র এক ঘন্টার জন্য খোলা থাকে। যেখানে বিনিয়োগকারীরা একটি টোকেনের মাধ্যমে শেয়ার কিনতে পারে। একটি বিশেষ টোকেন কিনে টোকেনের মধ্যে পাঞ্চ করেলে শুরু হয়ে যায় নতুন ক্যালেন্ডারের হিসেবের গননা। সম্বত কী? সম্বত হল অর্থ বর্ষের নতুন ক্যালেন্ডার। সম্বত ২০৮০ ভারতীয় স্টক মার্কেটে একটি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। এটি একটি নতুন হিন্দু বছর বা বিক্রম সম্বত। এবং বিনিয়োগকারীদের জন্য একটি নতুন সূচনাকে চিহ্নিত করে থাকে এই নতুন বছরের সম্বত ক্যালেন্ডার৷ বিক্রম সম্বত ক্যালেন্ডার একটি চন্দ্র ক্যালেন্ডার। এই ক্যালেন্ডারে নতুন বছর সাধারণত দীপাবলির উৎসব দিয়ে শুরু হয়। সুতরাং, গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারে ২০২৩ সালে দীপাবলির সময় সম্বত ২০৮০ শুরু। এই বছর, ২০৮০ সম্বত ১২ নভেম্বর শুরু হতে চলেছে। সম্বত ২০৮০ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অনেক আশা-প্রত্যাশার সঞ্চার ঘটিয়েছে। মুহুরাত ট্রেডিংয়ের তাৎপর্য: মুহুরাত ট্রেডিং ২০২৩ ভারতের বিনিয়োগকারী এবং ব্যবসায়ীদের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ, কারণ বিনিয়োগ শুরু করার এটি একটি নতুন উদ্যোগ। এটি বিনিয়োগকারীদের আর্থিক প্রচেষ্টায় সমৃদ্ধির আমন্ত্রণ জানানোর একটি শুভ উপলক্ষ হিসেবে চিহ্নিত করে। শেয়ার ট্রেডিংয়ের মুহরাত! জানেন কি এর ইতিহাস?   ঐতিহ্য এবং অর্থের এই অনন্য মিশ্রণ এই বিশ্বাসের সাথে মিশে যে এই নির্দিষ্ট মুহুরতে (সময়ে) ব্যবসা পরিচালনা করলে তা অর্থ-সম্পদ এবং সাফল্য আনতে পারে। গত বছর মুহুরত ট্রেডিং সেশনে শেয়ারবাজার ইতিবাচক লাভের সাথে বন্ধ হয়েছে। ২০২২ সালে, সেনসেক্স এবং নিফটি উভয় সূচকই এক ঘন্টার ট্রেডিং সেশনে ০.৮৮% বেড়েছে। ইভিএম নিউজ

আরো পড়ুন »

শেয়ার ট্রেডিংয়ের মুহরাত! জানেন কি এর ইতিহাস?

ব্যুরো নিউজ, ৭ নভেম্বর: শেয়ার ট্রেডিংয়ের মুহরাত! জানেন কি এর ইতিহাস? প্রতিবছর দীপাবলি উদযাপনের অংশ হিসাবে, শেয়ার বাজার একটি বিশেষ ট্রেডিং সেশনের জন্য খোলা হয় যা মুহরাত ট্রেডিং নামে পরিচিত। এই বছর মুহরাত ট্রেডিংয়ের সময় সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত। দীপাবলিতে এই বাজার শুধুমাত্র এক ঘন্টার জন্য খোলা থাকে। যেখানে বিনিয়োগকারীরা একটি টোকেনের মাধ্যমে শেয়ার কিনতে পারে। একটি বিশেষ টোকেন কিনে টোকেনের মধ্যে পাঞ্চ করেলে শুরু হয়ে যায় নতুন ক্যালেন্ডারের হিসেবের গননা। বিশেষ শেয়ার ট্রেডিংয়ে নজর সকলেরই নানা ধরনের ব্যবসায়ী, শেয়ার কারবারী এমনকি মধ্য ও উচ্চ আয়ের চাকুরীজীবীরাও এই মুহরাত ট্রেডিংয়ের জন্য মুখিয়ে থাকেন এই ধারণায় যে, এই সময় শেয়ারে টাকা বিনিয়োগ করলে তা লাভজনক হবে। তবে আমরা মুহরাত ট্রেডিংয় সম্পর্কে তো কম বেশি অনেকেই জানি। কিন্তু কীভাবে শুরু হয়েছিল এই মুহরাত ট্রেডিংয়ের প্রথা? মুহরাত ট্রেডিংয়ের শিকড় প্রাচীন ভারতে খুঁজে পাওয়া যায়। রাজা বিক্রমাদিত্য এই প্রথা শুরু করেছিলেন বলে বিশ্বাস করা হয়। রাজা বিক্রমাদিত্য বিশ্বাস করতেন যে, দীপাবলিতে বিনিয়োগ করলে তার রাজ্যে সমৃদ্ধি আসবে। সময়ের সাথে সাথে, এটি ব্যবসায়ীদের মধ্যে একটি রীতিতে পরিণত হয়। যেহেতু তখন অনলাইন ট্রেডিং ছিল না, তাই তখন ব্যবসায়ীরা তাদের বাণিজ্য শুরু করার জন্য এই শুভ সময়ে স্টক এক্সচেঞ্জে সশরীরে হাজির থাকতেন। বিংশ শতাব্দীতে মুহরাত ট্রেডিংয় ভারতীয় শেয়ার বাজারে সরকারী স্বীকৃতি লাভ করেছে। বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ (বিএসই) 1957 সালে প্রথম এই ঐতিহ্য গ্রহণ করে। পরে এটি ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ (এনএসই) দ্বারা গ্রহণ করা হ্তেন। ইভিএম নিউজ 

আরো পড়ুন »

বিশেষ শেয়ার ট্রেডিংয়ে নজর সকলেরই

ব্যুরো নিউজ, ২ নভেম্বর: বিশেষ শেয়ার ট্রেডিংয়ে নজর সকলেরই আগামী ১২ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬ টায় মাত্র ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের জন্য বিশেষ শেয়ার ট্রেডিংয়ের ব্যবস্থা থাকছে। কালিপুজো আর ধন্তেরাস এই দুই শুভ উৎসবে শেয়ার ট্রেডিংয়ের দিকেই তাকিয়ে আছে বিনিয়োগকারীরা। মুহুরাত ট্রেডিংয়ের তাৎপর্য প্রতি বছর এই ধরনের উদ্যোগ শেয়ার বাজারের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়। আর সেই শুভ মুহূর্তের জন্য শেয়ার ব্যবসায়ীরা অপেক্ষা করে থাকেন। তাদের ধারণা এই সময় শেয়ারে টাকা বিনিয়োগ করলে তা লাভজনক হবে। এমনকি ফিরে যেতে পারে ভাগ্যের চাকা! নানা ধরনের ব্যবসায়ী, শেয়ার কারবারী এমনকি মধ্য ও উচ্চ আয়ের চাকুরীজীবীরাও এই সবের খোঁজ খবর রাখেন। তাদের সকলেই কোনও না  কোনও শেয়ার দালালের সঙ্গে নীবির যোগাযোগ রাখেন। আবার কেউ নিজেদের বাড়ির কম্পিউটারেই চোখ রাখেন। বাস্তবে শেয়ার বাজারে ওঠা-পড়া অনিয়মিত হতে পারে, ঘোটতে পারে মারাত্তক পতনও। তবে, শেয়ারে লগ্নিকারিরা এসবের ধার ধারেন না। তারা শেয়ার বাজারের ইতিবাচক দিকেই লক্ষ স্থির রাখেন। তাই যতটা পারা যায় এই সময়ে বিনিয়গের জন্য টাকার যোগান রাখেন তারা। তবে এখন লগ্নিকারিরা যথেষ্ট সতর্ক। সিঁদুরে মেঘ দেখলেই চট জলদি নিজেদের শেয়ার অল্প লাভে হলেও বেঁচে দিয়ে, বড় ক্ষতির হাত থেকে বেরিয়ে আসতে দুবার ভাবেন না।  ইভিএম নিউজ

আরো পড়ুন »

মুহুরাত ট্রেডিংয়ের তাৎপর্য

লাবনী চৌধুরী, ১ নভেম্বর: মুহুরাত ট্রেডিংয়ের তাৎপর্য দীপাবলিতে বাজার খোলার জন্য সময় ঘোষণা করল BSE। বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ প্রকাশ করেছে যে এই বছরের ১২ নভেম্বর দীপাবলিতে একটি বিশেষ ট্রেডিং সেশনের জন্য বাজারগুলি খোলা থাকবে সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা বেজে ১৫ মিনিট পর্যন্ত। যার মধ্যে প্রাক-মার্কেট সেশনের জন্য ১৫ মিনিট সময় রয়েছে। বিনিয়োগকারীরা মুহরাত সেশনের সময় ট্রেডিং থেকে অনেক লাভ করেছে। বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ সেনসেক্স গত ১০টি ট্রেডিং সেশনের মধ্যে সাতটিতে উচ্চ প্রান্তে বন্ধ হয়েছে। বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ শুক্রবার এই বছরের দীপাবলি উদযাপনের অংশ হিসাবে মুহরাত ট্রেডিং সেশন ঘোষণা করেছে। আগামীকাল থেকে শুরু ২য় হুগলি সেতু সংস্কারের কাজ প্রতি বছর, দীপাবলি উদযাপনের অংশ হিসাবে, শেয়ার বাজার একটি বিশেষ ট্রেডিং সেশনের জন্য খোলা হয়। এই বছর খোলা থাকবে সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত। এই বাজার শুধুমাত্র এক ঘন্টার জন্য খোলা থাকে। যেখানে বিনিয়োগকারীরা একটি টোকেনের মাধ্যমে শেয়ার কিনতে, একটি বিশেষ টোকেনের মধ্যে পাঞ্চ করে থাকে। ওই বিশেষ টোকেনের মধ্যে পাঞ্চ করেলে শুরু হয়ে যায় নতুন ক্যালেন্ডারের হিসেবের গননা। মুহুর্ত ট্রেডিং চলাকালীন, ইক্যুইটি, কমোডিটি ডেরিভেটিভস, কারেন্সি ডেরিভেটিভস, ইক্যুইটি ফিউচার এবং অপশন ও সিকিউরিটিজ লেন্ডিং অ্যান্ড লোনিং (SLB) এর মতো সেগমেন্ট জুড়ে একই সময় স্লটে বাণিজ্য হবে। মুহুর্ত কেনাবেচার তাৎপর্য: ভারতীয় ঐতিহ্যে দিওয়ালি কোনও নতুন উদ্যোগ শুরু করার জন্য একটি শুভ সময় বলে মনে করা হয়। এই বিশেষ মুহুর্তে ট্রেডিংয়ের মাধ্যমে বাজার অনুসরণ করে, যা সারা বছর বিনিয়োগকারীদের উপকারে আসবে বলে বিশ্বাস করা হয়। এটি একটি নতুন হিন্দু ক্যালেন্ডার বছরের সূচনাকে চিহ্নিত করে, যার নাম সম্বত। ঐতিহ্যের অংশ হিসাবে, এটি ব্যবসায়ীদের জন্য বছরের একটি শুভ সূচনা হিসাবে বিবেচিত হয়। পাশাপাশি সমস্ত স্টেকহোল্ডারদের জন্য আর্থিক সমৃদ্ধি ও বৃদ্ধি নিয়ে আসে বলে বিশ্বাস। অতীতে মুহুরাত ট্রেডিং লেনদেন: এই বছর দীপাবলি রবিবার পড়ায়, বিশেষ ট্রেডিং সেশন ছাড়া স্টক মার্কেট দীপাবলিতে বন্ধ থাকবে। বিনিয়োগকারীরা মুহুর্ত সেশনের সময় ট্রেডিং থেকে বড় অঙ্ক লাভ করেছে। বিএসই সেনসেক্স গত ১০টি ট্রেডিং সেশনের মধ্যে ৭টিতে উচ্চ পর্যায়ে এসে বন্ধ হয়েছে। গত দু’বছর মুহুর্ত ট্রেডিং সেশনের সময়, বাজারগুলি সবুজ রঙে এসে সেশন বন্ধ করেছিল। অর্থাৎ দু’টি বেঞ্চমার্ক সূচক। সেনসেক্স ও নিফটি ২০২২ সালে মহরত ট্রেডিংয়ে প্রতিটি ০.৮৮ শতাংশ-এর বেশিতে এসে দাঁড়িয়েছরিয়েছে। ২০২১ সালের বিশেষ ট্রেডিং সেশনে ০৪.৯ শতাংশ-এর বেশিতে এসে বন্ধ হয়েছে৷ যদিও এই বিশেষ ট্রেডিং ঘন্টাটিকে শুভ বলে মনে করা হয়। তবুও শেয়ার মার্কেটে বিনিয়গের আগে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে বিনিয়োগ করুন। ইভিএম নিউজ

আরো পড়ুন »

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

বিশ্ব জুড়ে

গুরুত্বপূর্ণ খবর

ঠিকানা